ধারাবাহিক জয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে রংপুর

স্পোর্টস মেইল: আবারও রংপুর রাইডার্সকে জয় এনে দিলেন বিদেশী রিক্রুট রাইলি রুশো ও এবি ডি ভিলিয়ার্স। এই দুই বিদেশি ক্রিকেটারের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে চলমান বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) ৩৬তম ম্যাচে রাজশাহী কিংসকে ৬ উইকেটে হারিয়েছে আসরের বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। ১১তম ম্যাচে ৭ম জয় তুলে নেওয়া দলটি অবস্হান করেছে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষস্থানে।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে এদিন টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় রাজশাহী কিংস এর অধিনায়ক মিরাজ। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে রংপুরের সংগ্রহ দাঁড়ায় ১৪১ রান।

দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩৫ রান আসে লরি ইভান্সের ব্যাট থেকে। এছাড়া আর কারও ব্যাট থেকেই আসেনি ত্রিশের বেশি রান। অন্যান্যদের মধ্যে কাইস আহমেদ ২২ ও ফজলে মাহমুদ রাব্বি ১৮ রান করেন।

রংপুর রাইডার্সের পক্ষে ফরহাদ রেজা শিকার করেন তিনটি উইকেট। এছাড়া দুটি করে উইকেট শিকার করেন নাজমুল ইসলাম অপু ও শহীদুল ইসলাম।আজ উইকেট শূন্য ছিলেন মাশরাফি।

জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে দলীয় ১৩ রানেই ওপেনার ক্রিস গেইলকে হারায় রংপুর রাইডার্স। ১০ রান করা গেইলের বিদায়ের পর ১৬ রান করে ফেরেন ভালো শুরুর ইঙ্গিত দেওয়া আরেক ওপেনার অ্যালেক্স হেলসও। তবে তাতেও মাশরাফি বিন মুর্তজার নেতৃত্বাধীন দল পথ হারায়নি। আগের ম্যাচের মত এই ম্যাচেও দলের হাল ধরেন রাইলি রুশো ও এবি ডি ভিলিয়ার্স।

শেষ পর্যন্ত অবশ্য জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে পারেনি এই জুটি। ৬০ রানের মাথার কামরুল ইসলাম রাব্বির আক্রমণে ভাঙে দুজনের পার্টনারশিপ; ৪৩ বলে ৫৫ রান করে রুশো সাজঘরে ফিরলে। এর কিছুক্ষণ পর সাজঘরে ফেরেন ডি ভিলিয়ার্সও। তার আগে ২৭ বলের মোকাবেলায় ৩৭ রান করেন তিনি। তবে মোহাম্মদ মিঠুন ও নাহিদুল ইসলাম দলকে পৌঁছে দেন জয়ের বন্দরে। ৮ বল ও ৬ উইকেট হাতে রেখেই রংপুর রাইডার্স পৌঁছে যায় জয়ের বন্দরে। রাজশাহী কিংসের পক্ষে অধিনায়ক মেহেদী হাসান মিরাজ, কামরুল ইসলাম রাব্বি, আরাফাত সানি ও কাইস আহমেদ শিকার করেন একটি করে উইকেট।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

রাজশাহী কিংস ১৪১/৮ (২০ ওভার)
ইভান্স ৩৫, কাইস ২২
রেজা ৩০/৩, শহীদুল ২৮/২

রংপুর রাইডার্স ১৪৫/৪ (১৮.৪ ওভার)
রুশো ৫৫, ডি ভিলিয়ার্স ৩৩
মিরাজ ২৪/১, কাইস ২৯/১

ফল: রংপুর রাইডার্স ৬ উইকেটে জয়ী।

বিএম/রনী/রাজীব