সতর্ক করার পরও ওজনে কারচুপি : গ্রাহক ঠকাতে পটু নুরজাহান সুইটস

চট্টগ্রাম মেইল : চলতি মাসের ১৬ তারিখ সতর্ক করার পরও কোন কর্ণপাতই করেনি হাটহাজারী উপজেলার ইছাপুর বাজারের নুরজাহান সুইটস এন্ড বেকারির মালিক। ফিরে গেছে ঠিক আগের আচরণে। গ্রাহক ঠকানোই যেন তার প্রধান টার্গেট। বেশি লাভের লোভ তাদের পেয়ে বসেছে ঝেঁকে। আর তাই এবার আর সতর্ক নয়, সরাসরি জরিমানা করে সাময়িকভাবে বন্ধই করে দিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমিন।

শনিবার দুপুরে অভিযান পরিচালনাকালে ওজনে কারচুপি করে ক্রেতাদের ঠকানোর বিষয়টি ধরে ফেলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। মিস্টির প্যাকেট, প্লাস্টিক বাটি ও পিপিসহ স্কেলে বসিয়ে এক কেজির কাটা দেখিয়ে ক্রেতার কাছ থেকে টাকা আদায় করছে দোকানী। অপরাধ হাতেনাতে ধরা পড়ায় ৫ হাজার টাকা জরিমানা করার পাশাপাশি এবার প্রতিষ্ঠানটিকে সাময়িকভাবে বন্ধ করে দিয়েছে ইউএনও।

এ বিষয়ে হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমিন বলেন, এর আগেও গত ১৬ মে একই প্রতিষ্ঠানে অভিযান পরিচালনা করলে নুরজাহান সুইটসে নানা অনিয়ম ধরা পড়ে। তখন মেয়াদের তারিখ বিহীন ১৫ কেজি দই ও রসমালাইসহ মোট ৩৫ কেজি মিষ্টি জব্দ করে ধ্বংস করা হয় । সেদিন ১০ হাজার টাকা জরিমানা করে প্রথমবারের মত মালিককে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে।

কিন্তু আজকে অভিযানে এসে দেখা যায়, বরাবরের মতই তারা গ্রাহক ঠকিয়ে যাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি । তিনি বলেন, প্যাকেট এর ওজন ৭৮ গ্রাম, টক দইয়ের ওজন ৮২৮ গ্রাম এবং রসমালাই এর ওজন ৯৩৮ গ্রাম হলেও বিক্রি করার সময় ১ কেজি বলে বিক্রি করছে বিক্রেতারা। তাই এবার আর ছাড় দেয়া হয়নি। ৫ হাজার টাকা জরিমানার পাশাপাশি দোকান মালিকের কাছ থেকে মুচলেকা নিয়ে দোকানটি সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেয়া হয়।

বিএম/রাজীব সেন..