কারাগারে খুন সন্ত্রাসী অমিত মুহুরী

চট্টগ্রাম মেইল : চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি থাকা অবস্থায় খুন হয়েছেন সন্ত্রাসী অমিত মুহুরী (৩২)।

বুধবার (২৯ মে) রাত ১১ টার দিকে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে অমিতকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। রাত ১টার দিকে তাকে মৃত ঘোষণা করা হয়।

কারাগার ও পুলিশ সূত্র জানায়, ৩২ নম্বর সেলে রিপন নামের একজনের ‘ইটের’ আঘাতে মাথায় গুরুতর আঘাত পান অমিত। এরপর তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। পরে দায়িত্বরত চিকিৎসক অমিতকে মৃত ঘোষণা করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চট্টগ্রামের জেলার নাছির আহমেদ।

অমিত মুহুরী

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়,অমিতের মাথার উপরে এবং পেছনে গুরুতর জখম ছিল। ধারালো কিছুর আঘাতে জখম হয়েছিল। ৩০টির মতো সেলাই দিতে হয়েছে। হাসপাতালে আনার পর থেকে তাকে অক্সিজেন দিয়ে রাখা হয়েছিল। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে তার মৃত্যু হয়েছে।

উল্লেখ্য ২০১৭ সালের ১৩ আগস্ট চট্টগ্রাম নগরের এনায়েতবাজার এলাকার রানীরদিঘি এলাকা থেকে একটি ড্রাম উদ্ধার করে পুলিশ। প্রথমে বোমা রয়েছে ভাবা হলেও ড্রাম কেটে ভেতরে লাশ উদ্ধার করা হয়। লাশ গলে যাওয়ায় তখন পরিচয় বের করা যায়নি। পরে এ ঘটনার তদন্ত করতে গিয়ে ৩১ আগস্ট ইমাম হোসেন ও শফিকুর রহমান নামের দুজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

জিজ্ঞাসাবাদে তাঁরা পুলিশকে জানান, ড্রামের ভেতরে পাওয়া লাশটি অমিতের বন্ধু নগর যুবলীগের কর্মী ইমরানুল করিমের।

ড্রামের ভিতর ছিল ইমরানুলের লাশ

সেই বছর ৯ আগস্ট নগরের নন্দনকানন হরিশ দত্ত লেনের নিজের বাসায় ইমরানুলকে ডেকে নেন অমিত। এরপর বাসার ভেতরেই তাঁকে হত্যা করা হয়।

এ ঘটনায় ২০১৭ সালের ২ সেপ্টেম্বর অমিতকে কুমিল্লা থেকে গ্রেপ্তার করে গোয়েন্দা পুলিশ।

পুলিশ জানায়, অমিতের বিরুদ্ধে হত্যা, অস্ত্র ও চাঁদাবাজির ১৫টি মামলা রয়েছে। পূর্বাঞ্চল রেলের কোটি টাকার দরপত্র নিয়ে জোড়া খুনের মামলার আসামিও তিনি।

নিহত অমিত যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির উপ-অর্থ বিষয়ক সম্পাদক হেলাল আকবর চৌধুরী বাবরের অনুসারী ছিলেন।

বিএম/রনী/রাজীব