চসিকের সড়ক উন্নয়ন চিত্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল
বৃষ্টিতে জমে থাকা পানির ওপর পিচ ঢালাই

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল

চট্টগ্রাম মেইল : চট্টগ্রাম নগরীতে বৃষ্টির মধ্যেই চলছে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের সড়ক উন্নয়নের কাজ। খানা খন্দে ভরা রাস্তায় কাদা পানির ওপরেই বিটোমিন (পিচ) মিশ্রিত পাথর ফেলে কার্পেটিং করে সড়কে পিচ ঢালাইতে ব্যস্ত শ্রমিকরা। শনিবার চট্টগ্রাম নগরীর চকবাজার কেয়ারী ইলিশিয়ামের সামনে এবং নগরীর লাভ লেইন মোড় এলাকায় চসিকের এমনই উন্নয়ন চিত্র এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল।

সরেজমিনে দেখা যায়, চসিকের শ্রমিকেরা গুঁড়ি ঘুঁড়ি বৃষ্টিতে সড়কে জমে থাকা পানির ওপরেই পাথরের কণা ও বিটুমিনের গরম মিশ্রণ ফেলছেন, ধোঁয়া উড়ছে। তবে সড়কের গরম পিচের মিশ্রণটি জমাট বাঁধার আগেই বৃষ্টির পানিতে তা ঠান্ডা হয়ে জমে যাচ্ছে। ফলে খুব অল্প সময়ের মধ্যেই উন্নয়ন কাজ নষ্ট হয়ে সেই পুরনো চেনা সড়কে ফিরে যাবে এমনটাই আশঙ্কা করছে নগরবাসী।

শনিবার বিকেলে ৫টি ছবিসহ ফেসবুক টাইম লাইনে চসিকের উন্নয়ন চিত্র পোস্ট করেছেন বেসরকারী টেলিভিশন এনটিভি’র চট্টগ্রাম অফিসে কর্মরত সিনিয়র ক্যামেরাপার্সন এনাম হায়দার। তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্টকৃত স্ট্যাটাসে শিরোনাম দিয়েছেন “আহারে উন্নয়ন…. টাকা ব্যয় বৃষ্টির পানিতে”

তিনি লিখেছেন, দুপুর ১.৫০ মিনিট নগরীর লাভলেইন মোড় এলাকায় সড়ক সংস্কার। প্রচন্ড বৃষ্টি-সড়কে বৃষ্টির পানি জমে আছে এরই মাঝে চলছে সড়কে ভিটুমিন ঢালাইয়ের কাজ। পানিতে ভিটুমিন দিয়ে চলছে সড়কের গর্ত ভরাট। বৃষ্টির সাথে পাল্লা দিয়ে গরম ভিটুমিন পানিতে যাচ্ছে মিশে। কালো টাকা নাকি সাধারণ মানুষের কষ্টের টাকায় এই উন্নয়ন। কর্তৃপক্ষ কোন জবাব আছে কি?”

ঠিক একই ভাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ডিএসসি নামক চট্টগ্রামের অন্যতম বৃহত্তম একটি গ্রুপে বৃষ্টির পানিতেই সড়ক উন্নয়নের ছবি পোস্ট করে আবদুল্লাহ তামজিদ নামে একজন লিখেন এসব কি? ‘সিটি কর্পোরেশনের উন্নয়নের জোয়ার’

একই গ্রুপে মো. আরিফ উদ্দিন নামে একজন ছবি পোস্ট করে টাইমলাইনে উল্লেখ করেছেন “মারহাবা, জনগনের মাল দড়িয়ামে ঢাল”

এসব ছবিসহ চসিকের উন্নয়ন চিত্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোষ্ট হওয়ার পর থেকে কমেন্ট ও রিয়েক্ট করে নানা প্রতিক্রিয়ায় ভাসাচ্ছেন ফেসবুক ব্যবহারকারীরা।

শাহ মোহাম্মদ ইসমাইল নামে একজন পোস্ট করেছেন লিখেছেন, ‘এই কার্পেটিং এর মধ্যে পানি থাকলে ফ্রস্ট হিভস হতে পারে। যার কারণে কিছুদিনের মধ্যেই নিচের লেয়ারের পিচ চলে গিয়ে ভয়েড তৈরি করবে। যার ফলে কার্পেটিংয়ে ক্র্যাক ধরবে অথবা আগের মতো গর্ত হয়ে থাকবে। অর্থাৎ হুদাই এগুলা ঢালা হচ্ছে। কাজের কাজ কিছু হবে না। যিনি পোস্ট দিছেন, তারা এমনে ধুয়ে দেবার কিছু নাই।’

নগরীর লাভলেইন মোড়ের বৃষ্টির মধ্যে সড়ক উন্নয়নের কাজ দেখতে পেয়ে পথচারী লোকমান হাকিম তাৎক্ষনিক মন্তব্য করেন, এমনিতেই দুই ইঞ্চি পিচ ঢালাই করে গর্ত ভরাটে ঢালা হচ্ছে এক ইঞ্চির মতো, তার উপর বৃষ্টির মধ্যেই এসব পিচ ঢালাইয়ের কাজ করা হচ্ছে। ফলে কয়েক দিনের মধ্যেই সড়ক আগের অবস্থায় ফিরে আসবে বলে মনে করেন তিনি।

নাম প্রকাশ না করা স্বর্তে একজন প্রকৌশলী বলেন, বৃষ্টির পানির মধ্যে সংস্কার কাজ করা হলে সড়কটি বেশিদিন টিকবে না। কারণ, পিচের প্রধান শত্রু পানি।

এ বিষয়ে উন্নয়ন কাজে কর্মরত কয়েকজনের সাথে কথা হলে তারা জানিয়েছে কাজটি ভাল হবেনা। তবে বৃষ্টি শুরু হওয়ার আগেই তারা সড়ক উন্নয়নের কাজ শুরু করেছে জানিয়ে বলেন, সড়ক কার্পেটিং এর জন্য যখন বিটুমিনের সাথে গরম নুড়ি পাথরগুলো সড়কে ঢালা হলো, তখনই বৃষ্টি শুরু হয়। তখন আর কিছুই করার ছিলনা।

ঠিক সে সময়ে কয়েকজন লোক তাদের মুঠোফোনে ছবি তুলে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিয়েছে।

বিএম/রাজীব… 

 

আরো খবর:: বর্ষবরণ উৎসবকে নির্বিঘ্ন করতে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা নেয়া হয়েছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী