যৌতুকের বলি তানিয়া
অসহায় পিতার প্রশ্ন, বিচার কি হবে হত্যাকারীর?

অসহায় পিতার প্রশ্ন, বিচার কি হবে হত্যাকারীর?

চট্টগ্রাম মেইল : চট্টগ্রামের কর্ণফুলি থানা চরলক্ষ্যা ১ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা নুর ইসলাম। মাত্র ৯ হাজার টাকা বেতনে চাকরি করে অভাব অনটনে কোনভাবে সংসারটা তিনি চালিয়ে নিতেন। সম্প্রতি প্রতিবেশি ও স্থানীয় বিত্তশালীদের কাছ থেকে আর্থিক সহযোগীতা নিয়ে মেয়ে তানিয়া আক্তারকে বিয়ে দিয়েছেন সামাজিকভাবেই।

গত ৫ মাস আগে বান্দরবান জেলার আলিকদম ১ নং ওয়ার্ড সিলেটি পাড়ার বাসিন্দা আব্দুর রহমান মিনারের সাথে পারিবারিক সম্মতিতে বিয়ে হয় তানিয়ার। অনেক আশা নিয়েই বাবা তার মেয়েকে পাঠিয়েছে শ্বশুর বাড়ি। কিন্তু তখনো কি তিনি জানতেন যৌতুকের বলি হবে তার আদরের কণ্যাটি? জানলে হয়তো মেয়েটাকে সামাজিকভাবে আর্থিক সহযোগীতা নিয়ে এতো তাড়াতাড়ি শ্বশুড় বাড়ি পাঠাতেন না। আরো কিছুদিন নিজের কাছেই আগলে রাখতেন।

যৌতুকের বলি তানিয়া!

মেয়েকে শ্বশুড়বাড়ির লোকজন নির্যাতন করে হত্যা করেছে অভিযোগ করেন নুর ইসলাম। বলেন, গত ৯ জুলাই মেয়েকে শারিরিক নির্যাতনের পর চকরিয়া বাস স্ট্যান্ড থেকে হানিফ পরিবহনের একটি বাসে তানিয়াকে একা তুলে দেন শ্বশুড়বাড়ির লোকজন। তারা সেখান থেকে ফোন দিয়ে জানায় চট্টগ্রামের আক্তারুজ্জান চত্তর (মইজ্জার টেক) হানিফ পরিবহন থেকে যেনো মেয়েকে বুঝে নেন।

ফোন পেয়ে মেয়েকে বুঝে নিলেও তখন তার হাঁটা চলারও উপায় ছিলোনা। তানিয়ার শারিরীক অবস্থা মারাত্মক খারাপ হওয়ায় তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। পরদিন ১০ জুলাই দুপুরে চিকিৎসাধিন অবস্থায় তানিয়ার মৃত্যু হয়।

নিহতের পর পোস্টমটেম রিপোর্টেও তানিয়ার শরীরে অসংখ্য নির্যাতনের চিহ্ন রয়েছে জানিয়ে নিহতের অসহায় পিতা দুঃখ করে বলেন, প্রভাবশালী কোন ব্যাক্তির হস্তক্ষেপ না থাকায় মৃত্যুর চারদিন হয়ে গেলেও এখনো প্রশাসনের কোন সহায়তা পাননি। অভাব অনটনে মামলা করার সামর্থ্য নাই বলে অঝরে কাদছে অসহায় মেয়ের পিতা নুর ইসলাম?

তিনি রবিবার দুপুরেও প্রতিবেদকের কাছে প্রশ্ন ছুঁড়ে দেন, বলেন মেয়ের মৃত্যুর বিচার কি পাবো? প্রভাবশালীদের ক্ষমতার দাপটে কি পার পেয়ে যাবে খুনিরা? সরকারি কোন মহানুভবের কি নজর পড়বে এ গরীব পিতার উপর?

তবে অসহায় পরিবারটিকে ন্যায় বিচার পাইয়ে দিতে দুজন আইনজীবি পাশে দাঁড়ানোতে কিছুটা স্বস্থি ফিরে আসে। এদিকে যৌতুকের বলি তানিয়ার মৃত্যুর কারণ অনুসন্ধানে এবং ন্যায় বিচার পেতে সর্বাত্মক সহযোগীতার আশ্বাস দিয়ে প্রশাসন বান্দরবানের আলিকদম থানায় হত্যা মামলা দায়েরের পরামর্শ দেন তানিয়ার পিতাকে। পাশাপাশি আইনজীবিরা কোন টাকা ছাড়াই মামলা পরিচালনার আশ্বাস দিলে রবিবার বিকেলে মামলা দায়েরের জন্য আলিকদম থানার উদ্দ্যেশে রওনা হয়েছেন নিহতের পিতা নুর ইসলাম।

অন্যদিকে অসহায় পিতার মেয়ে হত্যার ন্যায় বিচার পেতে সর্বাত্মক সহযোগীতা করবেন বলে কথা দিয়েছেন কর্ণফুলি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ শামসুল তাবরিজ ও দক্ষিণ জেলা শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক ইঞ্চিনিয়ার ইসলাম আহমেদ।

বিএম/রাজীব সেন..

আরো খবর: যৌতুকের বলি তানিয়া হত্যাকান্ডে গ্রেফতার ৩