হাবিবুল বশর মাইজভান্ডারীর ৬৮তম খোশরোজ উদযাপন

ফটিকছড়ি প্রতিনিধি : ফটিকছড়ির মাইজভান্ডার দরবার শরীফের আধ্যাত্মিক জগতের পুরোধা হযরত শাহসূফি সৈয়দ গোলামুর রহমান (ক:) আল-হাসানী আল-মাইজভান্ডারীর পুত্র, ত্বরিকায়ে মাইজভান্ডারীয়ার প্রধান প্রচারক গাউছে জমান শাহসূফি সৈয়দ শফিউল বশর মাইজভান্ডারীর বড়পুত্র সাজ্জাদানশীন শাহসুফী আলহাজ্ব মাওলানা সৈয়দ হাবিবুল বশর আল-মাইজভান্ডারীর ৬৮তম খোশরোজ শরীফ মঙ্গলবার ১ শ্রাবণ দরবার শরীফস্থ গাউছিয়া রহমান মনজিলে যথাযোগ্য মর্যাদায় অনুষ্ঠিত হয়।

এ উপলক্ষে ১৫ জুলাই সোমবার থেকে তাঁর লাখো আশেক-ভক্ত শত-শত গাড়ী যোগে মাইজভান্ডারে সমাবেত হতে থাকে। তারা ১৬ জুলাই মঙ্গলবার সকাল থেকে খতমে কোরআন, জিকির-আজকারে মশগুল ছিলেন এবং পীরছাহেবের সাথে সাক্ষাত করে দোয়া প্রার্থনা করেন।

রাতে মাইজভান্ডার শাহী ময়দানে গাউছিয়া মাইজভান্ডারীয়া হাবিবীয়া কেন্দ্রীয় পরিষদের উদ্যোগে বিশাল ভক্ত-সমাবেশ ও ত্বরিকায়ে মাইজভান্ডারীয়ার উপর আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি সাজ্জাদানশীনে দরবার শাহজাদা সৈয়দ মাহতাবুল বশর মাইজভান্ডারী’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সমাবেশে প্রধান মেহমান হিসেবে ভক্ত-জনতার উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন, মাইজভান্ডার দরবার শরীফের বড় শাজ্জাদানশীন শাহসুফী মাওলানা সৈয়দ হাবিবুল বশর আল-হাসানী; আল-মাইজভান্ডারী (মঃজিঃআঃ)।

পরিষদের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলী আহমদ, সাধারণ সম্পাদক হেমায়েত হোসেন চুন্নুসহ বিশিষ্ট আলেমেদ্বীন, স্থানীয় বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ প্রমূখ। পরে প্রধান মেহমান আ’লা সৈয়দ হাবিবুল বশর মাইজভান্ডারী দেশ ও বিশ্ববাসীর কল্যাণ কামনা করে আখেরী মোনাজাত পরিচালনা করেন।

বিএম/এমজে/আরএস