অপহরণকারীর মা গ্রেফতার
৭ দিনেও উদ্ধার হয়নি পটিয়া থেকে অপহৃত স্কুল ছাত্রী

পটিয়া প্রতিনিধি : চট্টগ্রামের পটিয়ায় খলিলুর রহমান বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর এক ছাত্রী অপহরনের ৭ দিন পরও এখনো উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ। তবে অপহরণকারীর মা হাজেরা খাতুনকে গ্রেফতার করে হাজতে পাঠানো হয়েছে বলে জানা গেছে।

জানা গেছে, পটিয়া পৌর সদরের খলিলুর রহমান বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর এক ছাত্রী প্রতিদিনের মত স্কুলে যাওয়ার জন্য ঘর থেকে বের হয়। গত ১৭ জুলাই স্কুলে যাওয়ার পথে মক্কা ভিলার সামনে থেকে করিম নামে এক চালক প্রাইভেট কারে তুলে নিয়ে যায়।

স্কুলে যাওয়ার পথে ছাত্রীকে অপহরণ করার খবর ছড়িয়ে পড়লে স্কুলের প্রধান শিক্ষক বিষয়টি তাৎক্ষনিক থানা পুলিশকে লিখিতভাবে জানান। পরবর্তীতে মেয়ের পিতা বাদী হয়ে একটি অপহরণ মামলা দায়ের করে।

ফিল্মি স্টাইলে গাড়িতে তুলে অপহরণ করে নিয়ে যাওয়ার ৭ দিন পার হলেও এখনো অপহৃত স্কুল ছাত্রীকে উদ্ধার কিংবা অপহরণকারীকে গ্রেফতার করতে না পারায় পুলিশের ভুমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

তবে অপহৃত স্কুল ছাত্রীকে উদ্ধার ও অপহরণকারীকে গ্রেফতারে পুলিশের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে জানিয়ে ইতিমধ্যে অপহরণকারীর মা হাজেরা খাতুনকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে পাঠানোর তথ্য জানিয়েছে পুলিশ।

এদিকে অপহৃত স্কুল ছাত্রীটির পরিবারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে সোমবার গভীর রাতে স্কুল ছাত্রীর মায়ের মোবাইল নাম্বারে অজ্ঞাতব্যক্তি ফোন করে চুপ থাকে। কোন ধরনের সাড়া শব্দ না পেলে ছাত্রীর মায়ের সন্দেহ আরো বেড়ে যায়। মঙ্গলবার সকালে পটিয়া থানার ওসি বোরহান উদ্দিনকে মোবাইল ফোনে জানানো হয়েছে।

মেয়ের পিতা অভিযোগ করেছেন, থানার সংশ্লিষ্ট তদন্তকারী কর্মকর্তা উদ্ধার কাজে গাফিলতি করছে। স্কুল ছাত্রীকে জীবিত উদ্ধার করতে প্রশাসনের জোর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ছাত্রীর বাবা।

এ ব্যাপারে পটিয়া থানার ওসি বোরহান উদ্দিন জানান, স্কুল ছাত্রী অপহরণ করার দায়ে থানায় একটি মামলা রেকর্ড হয়েছে। গাড়ি চালকের মাকে গ্রেফতার করার পাশাপাশি পটিয়া থানা পুলিশের একটি টিম স্কুল ছাত্রীকে উদ্ধারের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

বিএম/সঞ্জয় সেন/রাজীব..