বাংলাদেশ, শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯ - ৫:০৯ : পিএম


Tweet

প্রকাশ: ২০১৯-০৮-০৭ ১৭:৩৭:৩৩ পড়তে সময় লাগবে 1 মিনিট

কুতুবদিয়ার উত্তাল সমুদ্রে ২টি ক্লিংকারবাহী জাহাজ ডুবি

কুতুবদিয়ার উত্তাল সমুদ্রে ২টি ক্লিংকারবাহী জাহাজ ডুবি

চট্টগ্রাম মেইল : কক্সবাজারের কুতুবদিয়ার অদূরে উত্তাল সমুদ্রে ক্লিংকারবাহী দু’টি জাহাজ ডুবির ঘটনা ঘটেছে। এমভি টিটু-১৮ ও এমভি টিটু-১৯ নামে ওই জাহাজ দু’টি থেকে ১০ ক্রুকে জীবিত উদ্ধার করেছে বাংলাদেশ নৌবাহিনী।

আজ বুধবার আইএসপিআর-এর এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

আইএসপিআর এর পক্ষ থেকে আরও বলা হয়েছে, এ ঘটনায় অন্যদের উদ্ধারে কাজ করছে নৌবাহিনী জাহাজ দুর্জয়, সুরভী, শৈবাল ও সোয়াডস্।

স্থানীয়দের কাছ থেকে জানা যায়, বুধবার (৭ আগস্ট) দুপুরের দিকে জাহাজ ডুবির ঘটনাটি ঘটে। নিখোঁজ ব্যক্তিদের উদ্ধারে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল। তবে, তাৎক্ষণিকভাবে নিখোঁজদের পরিচয় বা জাহাজডুবির কারণ জানা যায়নি।

বিআইডব্লিউটিএ সূত্রে জানা যায়,  ক্লিংকারবোঝাই করে জাহাজ দুটি নারায়ণগঞ্জ ও মুন্সীগঞ্জ যাওয়ার পথে কুতুবদিয়ার কাছাকাছি গভীর সমুদ্রে এসে উত্তাল সাগরের প্রচণ্ড ঢেউয়ে জাহাজের তলা ও হ্যাজ ভেঙ্গে পড়ে ডুবে যায়। দুটি জাহাজে প্রায় ২৪ জন ক্রু থাকলেও এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ১৪ জন নাবিক ও শ্রমিক নিখোঁজ রয়েছে।

এর মধ্যে এমভি টিটু ১৯ এর অনেক নাবিক ও শ্রমিক এখনো নিখোঁজ রয়েছে বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রাম এর উপ-পরিচালক মো. সেলিম।

এদিকে সোমবার (৫ আগস্ট) দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে সন্দ্বীপ ও ভাসানচরের মাঝামাঝি সাগরে অপর এক জাহাজডুবির ঘটনায় এখন পর্যন্ত নিখোঁজ রয়েছে সাতজন। গমবোঝাই ‘এমভি পাটগাটি-২’ নামের ওই জাহাজের নিখোঁজ সাত নাবিক ও শ্রমিককে উদ্ধারে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে স্থানীয় ডুবুরি দল।

চট্টগ্রাম বন্দরের সচিব ওমর ফারুক গণমাধ্যমকর্মীদের বলেছেন, এমভি আবদুল্লাহ আল আসিফ-১০ জাহাজের সঙ্গে ধাক্কা লেগে  ‘এমভি পাটগাটি-২’ জাহাজটির তলা ফুটো হয়ে যায়। এক হাজার ১০০ টন গমবাহী জাহাজটির নিখোঁজ নাবিক ও শ্রমিকদের উদ্ধারে নৌবাহিনীর একটি জাহাজ দুর্ঘটনাস্থলের আশপাশে স্থানীয় ডুবুরিসহ সাগরে তল্লাশী করছে।

বিএম/আরএসপি..

শেয়ার করুন :

লাইভ টিভি•LIVE