গার্লস প্রায়োরিটি গ্রুপের তাসনুভা কারাগারে

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় চট্টগ্রামের বহুল আলোচিত ও সমালোচিত ফেসবুক গ্রুপ গার্লস প্রায়োরিটি’র ক্রিয়েটর ও অ্যাডমিন তাসনুভা আনোয়ারের জামিন বাতিল করে কারাগারে পাঠিয়েছে চট্টগ্রামের একটি আদালত।

তাসনুভা আনোয়ারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ফেসবুক পেইজ, গ্রুপ ও ব্যক্তিগত ফেসবুক আইডি হ্যাক করার অভিযোগ রয়েছে।

চট্টগ্রাম মহানগর ম্যাজিস্ট্রেট আবু সালেহ মোহাম্মদ নোমানের আদালতে হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করলে আদালত জামিন নামঞ্জুর করে তাসনুভাকে কারাগার পাঠানোর আদেশ। এর আগে উচ্চ আদালত থেকে ৮ সাপ্তাহের জামিন নিয়েছিলেন অভিযুক্ত তাসনুভা আনোয়ার।

বিষয়টি নিশ্চিত করে সিএমপির অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (প্রসিকিউশন) কামরুজ্জামান জানান, উচ্চ আদালত থেকে নেয়া জামিনের মেয়াদ শেষ হয়ে গেলে নিন্ম আদালতে আত্মসমর্পন করে জামিন আবেদন করেছিলেন তাসনুভা। আদালত জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করে অভিযুক্ত তাসনুভাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, একই মামলায় হাইকোর্ট থেকে জামিনে রয়েছেন মামলার অপর আসামী গার্লস প্রায়োরিটি ক্রিয়েটর ও অ্যাডমিন তাসনুভা আনোয়ার এবং অ্যাডমিন নাদিয়া আক্তার রুমি। পলাতক আছেন মামলার অপর আসামী আমেনা আক্তার চৈতি।

উল্লেখ্য, জনৈক ইসতিয়াক হাসান গত ২৬ মে নগরীর পাঁচলাইশ থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ২০১৮ এর ১৭/১৮/২৪/২৫/৩৪/৩৫ ধারায় একটি মামলা দায়ের করেন। এই মামলায় গার্লস প্রায়োরিটি গ্রুপের স্বত্তাধিকারি তাসনুভা আনোয়ার, আমেনা চৈতী, সালমান মোহাম্মদ ওয়াহিদ, নাদিয়া আকতার রুমিকে আসামী করা হয়।

অভিযোগ রয়েছে, গার্লস প্রায়োরিটি গ্রুপের ক্রিয়েটর তাসনুভা আনোয়ারের সাথে যুক্ত হয়ে হ্যাকার সালমান মোহাম্মদ ওয়াহিদ ও অ্যাডমিনরা ফেসবুক গ্রুপে বিভিন্ন জনের নামে বিভ্রান্তিমূলক পোস্ট করে ব্লাকমেইলসহ নানান ভাবে হয়রানী করতেন।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, একই মামলায় হাইকোর্ট থেকে জামিনে রয়েছেন মামলার অপর আসামী গার্লস প্রায়োরিটি গ্রুপের অ্যাডমিন অ্যাডমিন নাদিয়া আক্তার রুমি। একই মামলায় হ্যাকার সালমান মোহাম্মদ ওয়াহিদ আগে থেকেই কারাগারে রয়েছেন এবং এই মামলায় পলাতক রয়েছেন অপর আসামী আমেনা আক্তার চৈতি।