বাংলাদেশ, মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ - ১০:২৯ : পিএম


Tweet

প্রকাশ: ২০১৯-০৯-০৭ ২২:১৮:০৪ পড়তে সময় লাগবে 2 মিনিট

সিএমপির জায়গা জোরদখল, অভিযুক্ত একাধিক মামলার আসামী জিয়া আটক

সিএমপির জায়গা জোরদখল, অভিযুক্ত একাধিক মামলার আসামী জিয়া আটক

চট্টগ্রাম মেইলঃ নগরীর বায়েজিদ থানাধীন শেরশাহ কলোনি এলাকা থেকে নারী নির্যাতন ও একাধিক বিষ্ফোরক মামলার এক আসামীকে গ্রেপ্তার করেছে বায়েজিদ থানা পুলিশ।গ্রেপ্তারকৃত আসামির নাম মোঃ জিয়া(৩৫)। সে শেরশাহ কলোনির মোঃ মহিউদ্দিন এর ছেলে।

গতকাল ৬ই সেপ্টেম্বর রাতে বায়েজিদ থানার শেরশাহ কলোনির তার নিজ বাসা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়ো৷ সে মাদক ও নাশকতাসহ একাধিক মামলায় পলাতক আসামি।

এলাকাবাসী সুত্রে জানা যায়, মোঃ জিয়া একজন সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ী, তার শশুর একজন সি.এম. পি পুলিশের কর্মকর্তা হওয়ার সুবাদে সে এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে। অভিযোগ আছে জোর দখল করে সিএমপির নিজস্ব জায়গাও বিক্রি করে সে। এলাকায় তার ভয়ে কেউ মুখ খুলতে সাহস পায় না। এমন কোন অপকর্ম নেই সে করে না। নাম প্রকাশে অনিছুক এলাকাবাসী জানান, তার ভয়ে সবাই তটস্থ থাকে।নারী নির্যাতন সহ বিভিন্ন অপরাধেও সে জড়িত। রিমা আক্তার এর উপর নির্যাতন তার মধ্যে একটি,এলাকাবাসী অনেকেই তার শাস্তি দাবী করেছেন।

মামলা সুত্রে জানা যায়,গত ২ মাস পূর্বে গিয়াসউদ্দিন, মোঃ জিয়া ও মোঃ জাবেদ তার সাথে অবৈধ সম্পর্ক করার প্রস্তাব দেয়,রিমা তাদের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় তাকে রাস্তা-ঘাটে আপত্তিকর কথাবার্তা বলে বিভিন্নভাবে হয়রানি করে। স্বামী ও পরিবারের মানসম্মানের চিন্তা করে কাউকে কিছু না জানিয়ে মুখ বুজে এসব অত্যাচার সহ্য করছেন।

এদিকে,গত ৩০শে জুলাই আনুমানিক রাত ১১টার সময় রিমা আক্তার তার বড়বোন সাহেদা আক্তার রিটার বাসা শেরশাহ দীঘির পাড় কে জি স্কুলের পার্শ্বে থেকে বের হয়ে তার নিজবাসায় যাওয়ার পথে মোঃ জিয়ার নেতৃত্বে মোঃ গিয়াস ও মোঃ জাবেদ পথরোধ করে রিমা আক্তারের মুখ চেপে ধরে ওসমান বিল্ডিং এর মাঝখানে অন্ধকারাছন্ন স্থানে নিয়ে পড়নের সলোয়ার কামিজ খুলে ধর্ষণের চেষ্টা করে। পরে রিমা আক্তার চিৎকার চেচামেচি করলে তাকে মারধর করে এবং তাদের কুপ্রস্তাবে রাজি না হলে তার নামে কুৎসা রটিয়ে মানহানি করবে বলে বিভিন্ন ভয়ভীতি দেখায় ও হুমকি প্রদান করে ।
যার পরিপ্রেক্ষিতে গত ০১/০৮/২০১৯ইং তারিখে ভুক্তভোগী রিমা আক্তার বায়েজিদ বোস্তামি থানা্য একটি অভিযোগ করেছেন।

এদিকে,আসামী মোঃ জিয়া বাদীকে জিন্মি করে আপোষ করার চেষ্টা করে কিন্তু গতকাল রাতে বাদী রিমা আক্তার এর বাসায় তার ছেলেকে মেরে ফেলার হুমকি প্রদান করে।ফলে রিমা আক্তার বায়েজিদ থানায় অভিযোগ করলে তাকে আটক করা হয়।

এ বিষয়ে কথা বলতে বাদী রিমা আক্তার এর সাথে টেলিফোনে যোগাযোগ করা হলে তাকে ফোনে পাওয়া যায় নাই।

বায়েজিদ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি)আতাউর রহমান খোন্দকার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন,রিমা আক্তার এর করা নারী ও শিশু নির্যাতন মামলায় মোঃ জিয়াকে গতকাল রাতে তার বাসা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।যার মামলা নং-০২ তারিখ ০১/০৮/২০১৯ইং।মামলার ধারাঃ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০এর ৯(৪)(খ)।আজ শনিবার ৭ই সেপ্টেম্বর উক্ত মামলায় আদালতে চালান করা হয়েছে।

বায়েজিদ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি)আতাউর রহমান খোন্দকার আরও বলেন,বায়েজিদ থানায় মোঃ জিয়ার নামে মাদক ও নাশকতাসহ বিভিন্ন অভিযোগে ৭/৮টি মামলা আছে।

গ্রেফতারকৃত যুবদল নেতা জিয়াকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন শফি উদ্দিনের আদালত।

শেয়ার করুন :

ট্যাগ :



লাইভ টিভি•LIVE