পটিয়ায় ফুটবল খেলা নিয়ে সংঘর্ষে আহত ১৫

পটিয়া প্রতিনিধি : পটিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্টিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টের অনুর্ধ্ব-১৭ এর খেলায় দুই টিমের সমর্থকদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

আজ মঙ্গলবার বিকেলে পটিয়া উপজেলার হাইদগাঁও ও খরনা ইউনিয়ন টিমের খেলা ছিল। খেলায় ১-০ গোলে খরনা ইউনিয়ন টিম বিজয়ী হয়। খেলার শেষ পর্যায়ে শ্লোগান দেওয়া নিয়ে হাইদগাঁও ও খরনা ইউনিয়ন টিমের সমর্থকদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

সংঘর্ষে হাইদগাঁও টিমের সমর্থক মো. ইফতেখার (২০), মো. মারুফ (১৭), সুমন (২২) ও ফরহাদ (২০)সহ অন্তত ১০জন এবং পথচারি ও এক ইউপি মহিলা মেম্বারসহ আরো ৫ জন আহত হওয়ার খবর জানা গেছে। আহতরা প্রাথমিকভাবে পটিয়া হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা গ্রহণ করেছেন।

জানা গেছে, খেলার শেষ পর্যায়ে শ্লোগান দেওয়া নিয়ে খরনা ইউনিয়ন টিমের সমর্থকদের সঙ্গে হাইদগাঁও ইউনিয়ন টিমের সমর্থকদের সংঘর্ষ বাধে। এসময় অতর্কিতভাবে খরনা টিমের সমর্থক কয়েকজন হাইদগাঁও টিমের সমর্থক মহিলা, পুরুষ ও খেলোয়াড়দের মারধর করে। এক পর্যায়ে এক খেলোয়াড়কে বেদমভাবে মারধর করে।

প্রত্যক্ষদর্শী ছাত্রলীগ নেতা নাজমুল সাকের ছিদ্দিকী জানিয়েছেন, খেলায় শ্লোগান দেওয়া নিয়ে অতর্কিতভাবে হাইদগাঁও টিমের সমর্থকদের উপর খরনা টিমের কয়েকজন হামলা চালিয়েছে। এতে হাইদগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের এক মহিলা মেম্বারও সামান্য আহত হয়েছেন। হামলার শিকার খেলোয়াড়, সমর্থকরা পটিয়া উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সভাপতি ও ইউএনও হাবিবুল হাসানকে অভিযোগ করেছেন।

পটিয়া উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার জসিম উদ্দিন জানিয়েছেন, খেলা ১-০ গোলে খরনা ইউনিয়ন টিম বিজয়ী হলেও শ্লোগান দেওয়া নিয়ে দুইপক্ষের মধ্যে মূলত মারামারি হয়েছে। যারা আহত হয়েছে তারা পটিয়া হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা গ্রহণ করেছেন।

বিএম/সঞ্জয়/আরএস