ভূমি ব্যবস্থাপনা নিয়ে টিআইবির প্রতিবেদন উড়িয়ে দিচ্ছি নাঃ ভূমিমন্ত্রী

ভূমি ব্যবস্থাপনা নিয়ে টিআইবির প্রতিবেদন পুরোপুরি সত্য নয় বলে দাবি করেছেন ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী।

তিনি বলেন, টিআইবির প্রতিবেদনটি আমার নজরে এসেছে। তাদের এ প্রতিবেদন পুরোটা সমর্থন করতে পারছি না। তবে তাদের প্রতিবেদন একেবারে উড়িয়েও দিচ্ছি না।

বুধবার সচিবালয়ে মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার দেখা করেন। সাক্ষাৎ শেষে মন্ত্রী সাংবাদিকদের সঙ্গে এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ভূমি রেজিস্ট্রেশন বিভাগে কিছু দুর্নীতি হয়, তবে এ অবস্থার উন্নতি হয়েছে। আরও যেসব বিষয়ে উন্নতি দরকার সেগুলো আমরা করব।

তিনি বলেন, ভূমি অফিসের জটিলতা এবং সমস্যা দীর্ঘ দিনের। অনেক ক্ষেত্রেই আগের চেয়ে বর্তমানে বেশ কিছু উন্নতি হয়েছে। টিআইবি যে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে এটা কখনকার -সেটা তারা উল্লেখ করেনি।

মন্ত্রী বলেন, দুর্নীতির বিষয়টি আগের চেয়ে তুলনা করলে অনেক পরিবর্তন নিয়ে এসেছি। মানুষ কিছুটা হলেও এখন সেবা পাচ্ছে। এখন আমরা অনলাইন ডাটাবেজে সাড়ে তিন কোটি খতিয়ান আপলোড করেছি। এসবের জন্য মানুষকে আগে অনেক হয়রানি পোহাতে হতো। এখন আর হয়রানি পোহাতে হয় না।

মার্কিন রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে সাক্ষতের বিষয়ে তিনি বলেন, মার্কিন রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশের ভূমি ব্যবস্থাপনায় সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন। দুই দেশের কর্মকর্তাদের মধ্যে স্ট্যাডি ট্যুরের প্রস্তাব দিয়েছেন।

মন্ত্রী আরও জানান, বাংলাদেশের চলমান উন্নয়নের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন মিলার। যুক্তরাষ্ট্র রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে তাদের সহযোগিতা অব্যাহত রাখার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। এছাড়া বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি অনুষ্ঠানে যুক্তরাষ্ট্র অংশ নেবে বলে জানিয়েছেন মিলার।

বিএম/এমআর