ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে বাংলাদেশ

আবার সেই জিম্বাবুয়ে সুতরাং বাংলাদেশের জয়।জয়ের লক্ষ্যে ১৭৬ রান তাড়া করা জিম্বাবুয়ের ১৩৬ রানে ইনিংস শেষ হয়।ফলে ৩৯ রানে জয় পেয়ে সহজ সমীকরণ মিলিয়ে সিরিজের ফাইনালে উঠে বাংলাদেশ।

প্রথমে টস হেরে ব্যাট করতে নামে বাংলাদেশ।
উদ্বোধনী জুটিতে বাংলাদেশকে ৪৯ রানের দারুণ সুচনা এনে দিয়েছিলেন নাজমুল হাসান শান্ত। তবে খুব বেশিদুর এগিয়ে নিতে পারেননি অভিষিক্ত শান্ত। ৯ বলে ১১ রান করে কাইল জার্ভিসকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তিনি ।
এরপর আসেন লিটন দাস । ২২ বলে ৩৮ রান করেন লিটন।
তিন নম্বরে ব্যাট করতে নামা অধিনায়ক সাকিব আল হাসান দলীয় ৬৫ রানের মাথায় ৯ বলে ১০ রান করে ফিরে যান সাজঘরে।
এরপর মুশফিক-মাহমুদউল্লাহ ৭৮ রানের জুটি গড়েন। দলীয় ১৪৩ রানের মাথায় ৩২ রান করে বিদায় নেন মুশফিক। শেষ ওভারে আউট হন দুর্দান্ত ব্যাটিং করা মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। বিদায়ের আগে এই ডানহাতি ৪১ বলে এক চার ও ৫টি ছক্কায় ঝড়ো ৬২ রান করেন। একই ওভারে মোসাদ্দেক হোসেন তুলে মারতে গিয়ে ব্যক্তিগত ২ রানে বিদায় নেন। মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ৬ রানে অপরাজিত থাকেন।

১৭৬ রানের লক্ষ্যে প্রথম দুই ওভারে দুই উইকেট হারায় জিম্বাবুয়ে। ওপেনিং ওভারে আসা মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন মাত্র এক রান দিয়ে ব্র্যান্ডন টেইলরের উইকেট তুলে নেন। পরের ওভারে রেজিস চাকাভাকে সরাসরি বোল্ড করেন সাকিব আল হাসান। দীর্ঘদিন পর দলে ফেরা শফিউল ইসলামও নিজের প্রথম ওভারে উইকেটের দেখা পান। শন উইলিয়ামসকে ব্যক্তিগত দুই রানে আফিফ হোসেনের ক্যাচে ফেরান তিনি। শেষ পর্যন্ত আর কেউ তেমন সুবিধা করতে না পারলে সবকটি উইকেট হারিয়ে জিম্বাবুয়ের ইনিংস থামে ১৩৬ রানে।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ হয়েছেন ৪১ বলে এক চার ও ৫টি ছক্কায় ঝড়ো ৬২ রান করা মাহমুদুল্লাহ।