ঢাকায় যুবলীগ নেতা খালেদ অস্ত্রসহ আটক, ক্ষুদ্ধ যুবলীগ চেয়ারম্যান

রাজধানীর গুলশানের বাসা থেকে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে অস্ত্রসহ গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। বুধবার (১৮ সেপ্টেম্বর) বিকেলে রাজধানীর গুলশান ২ এর ৫৯ রোডের ৫ নাম্বার বাসা থেকে তাকে আটক করে র‌্যাব।

এর আগে দুপুর থেকেই বাড়িটি ঘিরে রাখে র‍্যাবের প্রায় শতাধিক সদস্য। একই সময় ফকিরাপুলের ইয়ংমেন্স ক্লাবে জুয়ার ক্যাসিনোতে অভিযান চালায় র‍্যাব। সেই অভিযান শেষ করার পরই খালেদের বাড়িতে ঢুকে র‍্যাব।

খালেদ মাহমুদকে অস্ত্রসহ গ্রেফতারের পর তাৎক্ষণিক ভাবে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন যুবলীগ চেয়ারম্যান ওমর ফরুক চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘যুবলীগের বিরুদ্ধে পরিকল্পিত অপপ্রচার করা হচ্ছে। এই অপপ্রচারগুলো বিরাজনীতিকরণের একটি ষড়যন্ত্র।’

তিনি আরো বলেন- যদি ক্যাসিনো চলে তাহলে এটা অপরাধ। প্রশ্ন হলো আইনপ্রয়োগকারী সংস্থা এতদিন ধরে নীরব ছিল কেন? এই ক্যাসি’নো যারা চালিয়েছেন তারা যেমন অপরাধ করেছে। যে সমস্ত আইন প্রয়োগকারী সংস্থা এই ক্যাসিনো বন্ধ করেনি বা ক্যাসিনো দেখার পরেও নীরব ভূমিকা পালন করেছিল, তারাও শাস্তিযোগ্য অপরাধ করেছে।’

উল্লেখ্য, ঢাকার দুই যুবলীগ নেতাকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর ক্ষুদ্ধ বক্তব্যের পর খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে অস্ত্রসহ আটক করে র্যাব।