শেখ হাসিনা গণতন্ত্র অপর নাম: হাছান মাহমুদ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট:প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনাকে এক সংগ্রামী উপাখ্যানের নাম হিসেবে বর্ণনা করেছেন তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ।

শুক্রবার (৪ অক্টোবর) জাতীয় জাদুঘরে দেশরত্ন শেখ হাসিনার ৭২তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে সূচি শিল্প প্রদর্শনীর সমাপনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

হাছান মাহমুদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুর্জয় সংগ্রামের মধ্য দিয়ে মায়ের স্নেহের ছায়ায় আওয়ামী লীগকে লালন করেছেন। পরপর তিনবারসহ মোট চারবার দলকে রাষ্ট্র পরিচালনার দায়িত্বে এনেছেন। তাঁর পিতা, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর মতোই তিনিও ক্ষমতার জন্য রাজনীতি করেননি। তা করলে, ১৯৮১ সালে দেশে ফিরেই আপোষের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী হতে পারতেন। তিনি তা করেননি। জনগণ ও দেশের জন্য দলকে নিয়ে দীর্ঘ সংগ্রামী পথ পাড়ি দিয়েছেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, শেখ হাসিনার অবিস্মরণীয় নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ মধ্যম আয়ের দেশ। বাংলাদেশ সাহায্যগ্রহীতা নয়, সাহায্যদাতা দেশ। একসময় প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলায় বাংলাদেশকে অন্য দেশ সাহায্য করতো। এখন বাংলাদেশ অন্য দেশকে সাহায্য করে। নেপালে ভূমিকম্পের পর আমরা সেখানে ত্রাণ পাঠিয়েছি।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ছাত্রজীবন থেকে রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত শেখ হাসিনা গণতন্ত্র, সংগ্রাম ও অগ্রগতির অপর নাম।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতি মণ্ডলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী।

মতিয়া চৌধুরী ও ড. হাছান এ সময় সূচিশিল্পী ইলোরা পারভীনের হাতে সম্মানী চেক হস্তান্তর করেন।

হাসুমণি’র পাঠশালার সভাপতি ও আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য মারুফা আক্তার পপির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তৃতা করেন চিত্রকর অধ্যাপক জামাল আহমেদ, অধ্যাপক জুনায়েদ হালিম প্রমুখ।