ইস্ট ডেল্টাতে গবেষণাধর্মী এমএ ইন ইংলিশ শুরু

    শিক্ষাঙ্গণ মেইল : ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটির প্রতিষ্ঠাতা ভাইস চেয়ারম্যান সাঈদ আল নোমান বলেছেন, গবেষণাধর্মী শিক্ষার উপর গুরুত্বারোপ করতে হবে আমাদের। অনার্সের শিক্ষাকে কাজে লাগিয়ে মাস্টার্স পর্যায়ের একজন শিক্ষার্থী গবেষণার মাধ্যমে নতুন জ্ঞান সৃষ্টি করবে।

    এ লক্ষ্যেই ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটিতে আজ থেকে এমএ ইন ইংলিশ চালু হলো। কিন্তু, আরেকটি গতানুগতিক প্রোগ্রাম চালুর কোনো প্রয়োজনীয়তা কিংবা ইচ্ছে আমাদের নেই। আমরা প্রত্যয়ের সাথে বলতে চাই, এমএ ইন ইংলিশ শিক্ষার্থীদের জন্য হবে একটি সম্পূর্ণ নতুন অভিজ্ঞতা।

    ১৭ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টায় ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটি (ইডিইউ) ইংরেজি বিভাগে মাস্টার্সের কার্যক্রম উদ্বোধনকালে এসব কথা বলেন তিনি।

    সাঈদ আল নোমান আরো বলেন, আমাদের ইংরেজি বিভাগ আজ স্বয়ংসম্পূর্ণ হলো। এই অভিজ্ঞতা শিক্ষার্থীদের জন্য নতুন। শিক্ষকরাও এই পর্যায়ে এসে তাদের শিক্ষাক্রম ও পদ্ধতিতে নতুনত্ব আনবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

    উদ্বোধনী অনুষ্ঠানটি খুলশীস্থ স্থায়ী ক্যাম্পাসে বিশ্ববিদ্যালয়ের সেমিনার কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। এতে ভাইস চেয়ারম্যান সাঈদ আল নোমান মাস্টার্সে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলেন।

    ইডিইউ থেকে অনার্স শেষ করা শিক্ষার্থী রামিসা জারিন আলম এ সময় বলেন, ইডিইউতে আগে শুধু বিএ অনার্স থাকায় খারাপ লাগতো মাস্টার্স অন্য বিশ্ববিদ্যালয় থেকে করতে হবে বলে। কিন্তু এখন খুব ভালো লাগছে আমার বিশ্ববিদ্যালয়েই মাস্টার্স করার সুযোগ পাওয়ায়।

    নতুন ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থী ফারদিন ইয়াসিন বলেছে, ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটির সুনাম আমাকে এখানে ভর্তি হতে উদ্বুদ্ধ করেছে। প্রোগ্রামটি নতুন হলেও ইডিইউর এমএ ইন ইংলিশ আমাকে সমৃদ্ধ করবে বলেই আমি বিশ্বাস করি।

    স্কুল অব লিবারেল আর্টসের ডিন শহিদুল ইসলাম চৌধুরীর সভাপতিত্বে এতে আরো উপস্থিত ছিলেন ট্রেজারার অধ্যাপক সামস-উদ-দোহা, ইন্টারন্যাশনাল অ্যাডভাইজরি বোর্ডের সদস্য সৈয়দ শফিকউদ্দীন আহমেদ, ডেভেলপমেন্ট এন্ড প্ল্যানিং ডিরেক্টর শাফায়েত কবির চৌধুরী, রেজিস্ট্রার সজল কান্তি বড়ুয়া, স্কুল অব ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ডিন ড. মো. নাজিম উদ্দিন, স্কুল অব বিজনেসের ডিন ড. মোহাম্মদ রকিবুল কবির প্রমুখ।

    বিএম/রাজীব..