পরিবহন খাতে শৃংখলা আনতে মেয়রের কাছে প্রস্তাবনা পরিবহন মালিকের

    চট্টগ্রাম মেইল : পরিবহন মালিকরা পরিবহন খাতে শৃংখলা ফিরিয়ে আনতে জেলা আরটিসি, মেট্টো আরটিসি ও আইন শৃংখলা কমিটিকে নতুনভাবে গড়ে তোলাসহ বেশকিছু প্রস্তাবনা মেয়রের কাছে জানিয়েছে পরিবহন মালিক ও শ্রমিকরা।

    সোমবার থেকে সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশন ৪৮ ঘন্টার ধর্মঘট ডেকে,তা ২ ঘন্টার মধ্যে প্রত্যাহার করে নেয়ার নেপথ্যের ঘটনা নগরপিতাকে অবহিত করতে গেলে পরিবহন মালিকরা মেয়রের কাছে এসব প্রস্তাবনা তুলে ধরেন।

    প্রস্তাবনার মধ্যে ছিল রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি অর্থাৎ জেলা আরটিসি, মেট্টো আরটিসি ও আইন শৃংখলা কমিটিকে নতুনভাবে গড়ে তোলার জন্য মেয়রের হস্তক্ষেপ, আইন শৃংখলা কমিটিতে স্বীকৃত যুদ্ধাপরাধী সাকা চৌধুরীর গাড়ী চালক বিএনপি নেতা মান্নানকে আইন শৃংখলা ও আরটিসি কমিটি থেকে বাদ দেয়া এবং সিটি মেয়রকে জেলা সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপের প্রধান উপদেষ্টা থাকার প্রস্তাব ইত্যাদি।

    পরিবহন মালিকদের উদ্দেশ্যে মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন বলেন, বিশ্বমানের নগরী গড়তে নগরে পরিবহন খাতে শৃংখলা ফিরিয়ে আনা প্রয়োজন। এ খাতে পরিবহন শ্রমিকদের পাশাপাশি মালিকদেরও ভূমিকা রয়েছে। তিনি বলেন ইতোমধ্যে নগরীর কুলগাঁও বাস-ট্রাক টার্মিনাল নির্মাণসহ বেশকিছু মেগা প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। তাই এ মুহূর্তে সরকারের ভাবমূর্তিকে ক্ষুন্ন করতে কোন মহলের অপচেষ্টাকে সুযোগ দেয়া যাবে না।

    মেয়র সংশ্লিষ্ট প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের সাথে বৈঠকের মাধ্যমে পরিবহন খাতের এই নৈরাজ্য কিভাবে স্থায়ীভাবে নিরসন করা যায় সে বিষয়ে উদ্যোগ নিবেন বলে উল্লেখ করেন। প্রয়োজনে এ ব্যাপারে সড়ক ও সেতু মন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সহ সচিব পর্যায়ে কথা বলবেন বলে তিনি সভায় উল্লেখ করেন।

    পরিবহন মালিকের পক্ষে চট্টগ্রাম জেলা সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপের সভাপতি মনজুরুল আলম, কার্যকরী সভাপতি হাজী জহুর আহমদ, সভাপতি মাহবুবুল হক মিয়া, সৈয়দ হোসেন, গোলাম রসুল বাবুল, হাসান চৌধুরী, আবদুর রহমান, সালেহ আহমদ চৌধুরী, আবদুল মাবুদ সুমন, ছমু, কলি, শাহজাহান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

    বিএম/রাজীব..