সমুদ্রে লাইসেন্সবিহীন নৌকা, ট্রলার চলাচলে কঠোর নিষেধাজ্ঞা

    চট্টগ্রাম মেইল : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের আমলে কোনো দুর্নীতি, স্বজনপ্রীতি সহ্য করা হবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী মো. আশরাফ আলী খান খসরু। তিনি বলেন, আমার মন্ত্রণালয়ে আমি কারো তদবির গ্রহণ করব না। তাছাড়া সমুদ্রে লাইসেন্সবিহীন নৌকা, ট্রলার চলাচলে কঠোর নিষেধাজ্ঞার কথা জানিয়ে নিরাপত্তার জন্য প্রয়োজনীয় ইন্স্যুরেন্স করিয়ে নেবার জন্য ট্রলার, স্টিমার মালিকদের অনুরোধ করেন প্রতিমন্ত্রী।

    বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে ‘সামুদ্রিক মৎস্যসম্পদ সংরক্ষণ, ব্যবস্থাপনা, উন্নয়ন ও অবৈধ মৎস্য আহরণ’ শীর্ষক মতবিনিময় সভায় তিনি এ অনুরোধ জানান।

    সামুদ্রিক মৎস্য সম্পদ সংরক্ষণে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলোর নজরদারি আরো বৃদ্ধি করার তাগিদ দিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, বিদেশী ট্রলার ও নৌকা আমাদের জলসীমায় অনুপ্রবেশ করে অতিরিক্ত মৎস্য আহরণের ফলে সামুদ্রিক মৎস্য সম্পদের মারাত্মক ক্ষতি সাধিত হয়। এজন্য বঙ্গোপসাগরে বাংলাদেশের জলসীমায় বিদেশী ট্রলার অবৈধ অনুপ্রবেশ করলে তা আটক করার জন্য নৌ বাহিনী ও কোস্ট গার্ডের প্রতি নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

    পাশাপাশি প্রয়োজনের তুলনায় সামুদ্রিক মাছ বেশি আহরণ না করার জন্য দেশীয় জেলেদের অনুরোধ জানান প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরু। তিনি বলেন, জাতীয় মাছ ইলিশের প্রজণন বৃদ্ধির জন্য মা মাছ ধরা বন্ধ এবং কারেন্ট জাল ব্যবহার বন্ধ রাখার পরামর্শ দেন। এরপরেও যদি কেউ তা ব্যবহার করে সামুদ্রিক সম্পদের ক্ষতিসাধন করার চেষ্টা করে তবে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের কথা বলেন প্রতিমন্ত্রী।

    দেশের উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আন্তরিকতার কথা তুলে ধরে প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্বাচনী ইশতেহার অনুযায়ী দেশের মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠা করে দেশ থেকে এখন দুর করেছে ধনী গরীব বৈষম্য। ভবিষ্যতে তা জিরো টলারেন্সে চলে আসবে।

    ‘সামুদ্রিক মৎস্যসম্পদ সংরক্ষণ, ব্যবস্থাপনা, উন্নয়ন ও অবৈধ মৎস্য আহরণ’ শীর্ষক মতবিনিময় সভায় অন্যান্যের মধ্যে মন্ত্রণালয় সচিব রইছ উদ্দিন আহমদ মন্ডল, মহাপরিচালক আবু সাঈদ ইসলাম, মৎস্য কর্মকর্তা হাসান উল্লাহ বাবু, মেরিন ফিশারিজ একাডেমির অধ্যক্ষ ক্যাপ্টেন মাশুক হাসান আহমেদ, নৌ বাহিনীর কমান্ডার তানভির আহমেদ, চট্টগ্রামের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মহিউদ্দিন মাহমুদ সোহেলসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরের কর্মকর্তা কর্মচারীবৃন্দ।

    বিএম/রাজীব…