সরকারি কর্মচারীদের প্রধানমন্ত্রীর হুঁশিয়ারি : দুর্নীতির সুযোগ নেই

    জাতীয় মেইল : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের মতো দুর্নীতির বিরুদ্ধেও জিরো টলারেন্স নীতি অব্যাহত থাকবে। তিনি সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, সরকারি চাকরিতে দুর্ণীতির কোনো সুযোগ নেই,
    কোনো পর্যায়েই যাতে দুর্নীতি না হয় তা ভালোভাবে দেখতে হবে।

    টানা তৃতীয়বারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একাদশ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ জয়ের পর, বৃহস্পতিবার (১৭ জানুয়ারি) সচিবালয়ে প্রথমবারের মতো জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে অফিস করেন। বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টায় জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠককালে দুর্নীতি দমনে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়ার হুঁশিয়ারি ও প্রশাসনের সব পর্যায়ে স্বচ্ছতা ও জাবাবদিহি নিশ্চিত করার ঘোষণা দিয়ে দিকনির্দেশনা মূলক বক্তব্য দেন প্রধানমন্ত্রী।

    প্রধানমন্ত্রী বলেন, সারা দেশের ও প্রশাসনের কেন্দ্রবিন্দু বা হার্ট হচ্ছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। কাজেই এই মন্ত্রণালয়ের আপনাদের অনেক সুচারুভাবে কাজ করতে হবে। কেউ দুর্নীতিগ্রস্ত হলে, তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

    প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, জনগণের দোরগোড়ায় সেবা পৌঁছে দেয়ার নিশ্চয়তা দিতে চায় সরকার। আগামী ৫ বছরে দেশের প্রবৃদ্ধি ১০ ভাগে নেয়ার লক্ষ্য নিয়ে কাজ করা হচ্ছে।

    প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরকারি চাকরিতে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সব সুবিধাই নিশ্চিত করা হয়েছে, বেতন-ভাতা থেকে শুরু করে সবকিছু ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি করে দিয়েছি। আমি তো মনে করি যে, এখন আর ওই দুর্নীতির প্রয়োজন না। যা প্রয়োজন সেটা তো আমরা মেটাচ্ছি। তাহলে দুর্নীতি কেন হবে?

    কাজেই এখানে মানুষের মন-মানসিকতাটা পরিবর্তন করতে হবে। এবং সুনির্দিষ্ট একটা নির্দেশনা আপনাদের যেতে হবে একেবারে তৃণমূল পর্যায় পর্যন্ত যে, কেউ যদি এ ধরনের দুর্নীতিগ্রস্ত হয় সঙ্গে সঙ্গে তাঁর বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নিতে হবে, সবাইকেই জবাবদিহিতার আওতায় আনা হবে। দুর্নীতিমুক্ত প্রশাসন গড়ে তুলতে সরকারি চাকরি বিধি ২০১৮ দ্রুত বাস্তবায়ন করা হবে।

    বিএম/রাজীব…