হোন্ডায় লুকিং গ্লাস থাকলে ব্যাকডেটেড!-আব্দুর রউফ

    চট্টগ্রাম মেইল : বর্তমান ছেলেদের ফ্যাশনেবল সময়ে প্রবাদ উঠেছে যার হোন্ডায় লুকিং গ্লাস আছে সে ব্যাকডেটেড। তাছাড়া এখনকার স্টাইল হলো চাকার সাথে সমন্বয় রেখে রাস্তার সাথে লাগানো শর্ট তার ঝুলানো, যাতে মোটর বাইক চলার সময় বিকটভাবে পট পট শব্দ হয়। অতচ মোটর সাইকেলে লুকিং গ্লাস দেওয়া হয় চালককে তার ব্যাক সাইট দেখানোর জন্য।

    কথাগুলো আলোচনায় তুলে ধরেছেন চট্টগ্রাম নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (দক্ষিণ) শাহ মো. আব্দুর রউফ।

    সোমবার দুপুরে চট্টগ্রাম সরকারি সিটি কলেজ মাঠে “নিরাপত্তায় আস্তার ঠিকানা” শ্লোগানে পুলিশ সেবা সপ্তাহ ২০১৯ উপলক্ষে ট্রাফিক সচেতনতা মূলক আলোচনা সভায় আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে কথাগুলো আলোচনায় তুলে ধরেন।

    ট্রাফিক সপ্তাহ ২০১৯ উপলক্ষ্যে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ আয়োজিত অনুষ্ঠানে তিনি আরো বলেন, পুলিশের হাতে থাকা সরকারি অস্ত্রের ব্যবহার না জানলে যেমন ক্ষতি হয়, নিজের মাথায় তাক করে অসচেতনায় টিকার টানলে যেমন মৃত্যু নিশ্চিত। ঠিক তেমনি চালক যখন ড্রাইভিং সিটে বসে তখন সেটাও তার অস্ত্র। আর এ অস্ত্র যদি হ্যান্ডেল করতে না পারে তবে নিজের মৃত্যু নিজেই ডেকে আনার সামিল।

    আব্দুর রউফ সড়ক দুর্ঘটনা থেকে নিজেকে সেভ রাখতে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে পরামর্শ দিয়ে বলেন, যখন আমরা গাড়ি চালাবো তখন রাস্তার বাম পাশে হাটবো এবং যখন পথচারী হিসেবে রাস্তার ডান পাশ ধরে হাটবো। তাছাড়া সবাই রাস্তা পারাপারে আরো সচেতন থেকে মোবাইল ফোনে কথা না বলার পরামর্শ দেন পুলিশের এ কর্মকর্তা।

    সদর ঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি নেজাম উদ্দিনের সঞ্চালনায় আয়োজিত সচেতনমূলক সভার সভাপতিত্ব করেন চট্টগ্রাম সরকারি সিটি কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ ঝরনা খানম। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ছিলেন, সিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (প্রশাসন) কুসুম দেওয়ান। অন্যান্য অতিথির মধ্যে উপস্থিত থেকে সড়ক দুর্ঘটনা এড়াতে বিভিন্ন সচেতনতামূলক ও দিক নির্দেশনামূলক বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম মেট্রো পলিটন পুলিশের উপ-পুুলিশ কমিশনার ট্রাফিক (উত্তর) হারুন-উর-রশিদ হাযারী, উপ-পুলিশ কমিশনার মেহেদী হাসান, সরকারি সিটি কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ অধ্যক্ষ মঞ্জুর হাসান, কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মো. মহসিন।

    প্রশাসনের প্রতি কয়েকটি দাবি রেখে বক্তব্য রাখেন সিটি কলেজ ছাত্র সংসদ ভিপি (দিবা) আবু তাহের ও ভিপি রাজীব হাসান রাজন। এছাড়াও সরকারি সিটি কলেজ ছাত্রলীগ ও ছাত্রসংসদের নের্তৃবৃন্দরা বক্তব্য রাখেন। উপস্থিত ছিলেন কলেজের ছাত্র-ছাত্রী ও প্রশাসনের বিভিন্ন কর্মকর্তারা।

    বিএম/রাজীব সেন ….