ফটিকছড়িতে শতবর্ষী পুকুর ভরাটের দায়ে এক ব্যক্তির জরিমানা

চট্টগ্রাম মেইল : ফটিকছড়ির দাঁতমারায় শতবছরের পুরনো পুকুরের ৩০ শতক অংশ ভরাট করে ঐ এলাকার জীব বৈচিত্র্য, প্রাকৃতিক পরিবেশ, ভূমির বাইন্ডিং ক্যাপাসিটি ও মাটির ক্ষয়বৃদ্ধিসহ পরিবেশের ও প্রতিবেশের মারাত্মক ক্ষতি করার কারনে এক লাখ টাকা জরিমানা করেছে পরিবেশ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম বিভাগ।

এ ছাড়া পুকুর ভরাটকারী ঐ এলাকার মোহাম্মদ জয়নাল আবেদীনকে আগামী একসপ্তাহের মধ্যে ভরাটকৃত পুকুর পূর্বের অবস্থায় ফিরিয়ে আনার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

সোমবার বিকালে পরিবেশ অধিদপ্তরের কার্যালয়ে বিবাদী ও প্রসিকিউিশনের পক্ষে দপ্তরের সহকারি পরিচালক ও পরিদর্শকের উপস্থিতিতে উভয়ের বক্তব্য শুনে এ আদেশ দেন পরিবেশ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম কার্যালয়ের পরিচালক মোহাম্মদ মোয়াজ্জম হোসাইন।

এতে আরো বলা হয় নির্দেশ পালনে ব্যর্থ হলে বাংলাদেশ পরিবেশ সংরক্ষণ আইন ১৯৯৫ অনুযায়ি সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

উল্লেখ্য গত কিছুদিন ধরে ফটিকছড়ির ভুজপুরে বিশাল আকৃতির এ পুকুর ভরাট করে আসছিল একটি সংঘবদ্ধ সিন্ডিকেট। স্থানীয় প্রশাসনকে ম্যানেজ করে রাতের আধাঁরে ভরাট করা হচ্ছিল শতবর্ষী এ পুকুরটি।

এ বিষয়ে পরিবেশ অধিদপ্তরসহ জেলা প্রশাসকের দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা পর পাঁচ জনকে নোটিশ দেন পরিবেশ অধিদপ্তরের চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যালয়।

গত ৭ মার্চ পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিদর্শক মাঈদুল ইসলাম সরেজমিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে অভিযোগের সত্যতা পান। এর পর গত ১২ মার্চ পুকুর ভরাটকারী সিন্ডিকেটের প্রধান জয়নাল আবেদিন সহ ৫ জনের নামে নোটিশ পাঠানো হয়। নোটিশে পুকুরে মোট ৮১ শতাংশের মধ্যে ৩০ শতাংশ পুকুর ভরাটের সত্যতা পাওয়ার কথা উল্লেখ করা হয়।

২৫ মার্চ সোমবার বিকালে এ বিষয়ে চট্টগ্রাম পরিবেশ অধিদপ্তরের কার্যালয়ে শুনানী শেষে এ নির্দেশ দেন পরিচালক মো.মোয়াজ্জেম হোসাইন।

বিএম/রাজীব….