সলিমপুরে স্বামীর নির্যাতনে চোখ হারিয়েছে স্ত্রী

সীতাকুন্ড প্রতিনিধি : সীতাকুণ্ডে স্বামীর নির্যাতনে বাম চোখ হারিয়েছে স্ত্রী আয়েশা আক্তার (২৬)। এ ঘটনায় পুলিশ ইয়ামিন ওরফে রবিন নামে ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে।

গত সোমবার রাতে উপজেলার ছলিমপুর ইউনিয়নের সিডিএ আবাসিক এলাকার এ ঘটনা ঘটে।

থানায় বসে এই প্রতিবেদকের সাথে আলাপকালে আহত আয়েশা আক্তার জানান, সোমবার রাতে তার স্বামী রবিন কর্মস্থল থেকে বাসায় ফিরে কর্মস্থলের সমস্যা নিয়ে চিৎকার শুরু করেন। এ নিয়ে আয়েশা আক্তারের সঙ্গে তার কথা কাটাকাটি হয়। এ সময় রবিন তাকে মারধর করতে থাকেন। এক পর্যায়ে কাঁচি দিয়ে আয়েশার বাম চোখে খোঁচা দেন।

রক্তাক্ত অবস্থায় আয়েশা রাতে চিকিৎসার জন্য ডাক্তারের কাছে যেতে চাইলেও তাকে যেতে দেওয়া হয়নি। মঙ্গলবার সকালে স্ত্রীকে নিয়ে রবিন নগরীর একটি হাসপাতালে যান।পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে চোখটি নষ্ট হয়ে গেছে বলে জানান চিকিৎসক।

তাদের সংসারে ৪ বছরের একটি মেয়ে রয়েছে আয়েশা বলেন, আয়েশা বলেন, তার স্বামী প্রায় প্রতিদিনই ঘরে এসে যেকোন ছোটখাটো বিষয় নিয়ে মারধর করে। ওই দিন তার স্বামী রবিন তাকে বাড়িতে নিয়ে আসেন। জানাজানি হলে বিষয়টি ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করেন। পরে মঙ্গলবার রাতে আয়েশা এক আত্মীয়কে নিয়ে থানায় গিয়ে বিষয়টি ওসিকে জানান।

ওসি দেলওয়ার হোসেনের নির্দেশে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে রবিনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। বুধবার সকালে আয়েশা বাদী হয়ে স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

সীতাকুণ্ড মডেল থানার এসআই সুজায়েত হোসেন বলেন, স্বামীর নির্যাতনে আয়েশা আক্তারের চোখ মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এ ঘটনায় আয়েশা তার স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করায় রবিনকে গ্রেফতার করে ওই মামলায় বিকালে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে বলে জানান ওসি।

বিএম/কামরুল/রাজীব..