‘শ্বেতাঙ্গ জাতীয়তাবাদ’ নিষিদ্ধ করছে ফেসবুক

বিএম ডেস্ক : শ্বেতাঙ্গ জাতীয়তাবাদ সংশ্লিষ্ট প্রশংসা, সমর্থন এবং এর প্রতিনিধিত্ব করা ও বিচ্ছিন্নতাবাদী কনটেন্ট নিষিদ্ধ করতে যাচ্ছে জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক। এ ছাড়া কোন সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর উপাদান চিহ্নিত এবং সেটিকে নিষিদ্ধ করার সক্ষমতা আরো বাড়ানোর প্রতিশ্রুতিও দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। খবর বিবিসির।

ফেসবুকের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, বিষয়টি নিয়ে তারা সাধারণ মানুষ ও বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করেছে। এতে দেখা গেছে, শ্বেতাঙ্গ জাতীয়তাবাদকে অন্যান্য ঘৃণা সৃষ্টিকারী বা বিদ্বেষমূলক গোষ্ঠীগুলো থেকে আলাদা করে দেখার কোনও সুযোগ নেই। তাই ফেসবুকের টাইমলাইনে শ্বেতাঙ্গ জাতীয়তাবাদকে সমর্থন যোগায় এমন কোনও পোস্ট আর গ্রহণযোগ্য নয়।

২০১৯ সালের ১৫ মার্চ পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী, নিউ জিল্যান্ডের দুই মসজিদে গুলি চালিয়ে ৫০ মুসল্লিকে হত্যা করে উগ্র মুসলিমবিদ্বেষী অস্ট্রেলীয় নাগরিক ব্রেন্টন ট্যারান্ট। ফেসবুকে ওই হত্যাযজ্ঞ লাইভ করে এই শ্বেতাঙ্গ জাতীয়তাবাদী খুনি। নিজের ফেসবুক একাউন্ট থেকে সে ক্রাইস্টচার্চের দুই মসজিদে হামলার ১৭ মিনিট লাইভস্ট্রিমিং হাজির করেছে বিশ্ববাসীর সামনে।ওই ঘটনায় দুনিয়াজুড়ে সমালোচনার মুখে পড়ে ফেসবুক। ওই সমালোচনা আর মানবাধিকার সংস্থাগুলোর চাপের মুখে শেষ পর্যন্ত বুধবার ‘শ্বেতাঙ্গ জাতীয়তাবাদ’ নিষিদ্ধের ঘোষণা দেয় ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

বিএম/রনী/রাজীব