ব্রেক্সিট ইস্যুতে আবারও থেরেসার পরাজয়

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ব্রেক্সিট ইস্যুতে পার্লামেন্টের এমপিদের ভোটে তৃতীয়বারের মতো হেরে গেলেন প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে।

আজ শুক্রবার (২৯ মার্চ) ভোটে চুক্তির পক্ষে পড়েছে ২৮৬ এবং বিপক্ষে পড়েছে ৩৪৪ ভোট। সংখ্যা গরিষ্ঠরা ৫৮ ভোটে এগিয়ে থাকায় চুক্তির বিষয়টি আরও অনিশ্চয়তায় পড়ল।

এ মুহূর্তে ভোটে চুক্তিটি প্রত্যাখ্যাত হওয়ার পরিণতি গুরুতর হবে বলেই মন্তব্য করেছেন মে।

থেরেসা মে জানান, ব্রেক্সিট সম্পন্ন করার জন্য ১২ এপ্রিল পর্যন্ত হাতে সময় আছে। তার মানে চুক্তিবিহীন ব্রেক্সিট এড়াতে প্রয়োজনীয় আইন তৈরির যথেষ্ট সময় পাওয়া যাবে না।

ব্রেক্সিট প্রক্রিয়া নিশ্চিত করতে পার্লামেন্টকে আগেই মে জানিয়েছিলেন, এ ভোটটই আমাদের জন্য শেষ সুযোগ। সতর্ক করে দিয়ে তিনি বলেছিলেন, এ চুক্তি পাস না হলে ব্রেক্সিটে কোনোরকম দেরীর ক্ষেত্রে তা ১২ এপ্রিলের পর পর্যন্ত পিছিয়ে যাবে।

যুক্তরাজ্য ইইউ থেকে বেরিয়ে যেতে পারবে কিনা তা এখন পুরোপুরি অস্পষ্ট হয়ে পড়ল।

এর আগে যুক্তরাজ্যের টোরি পার্টির একজন পার্লামেন্ট সদস্য জানিয়েছিলেন, ব্রেক্সিট চুক্তিটি পার্লামেন্টে পাস হলে প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে তার পদ ছেড়ে যাবেন।

একই প্রতিশ্রুতি বুধবার (২৭ মার্চ) রক্ষণশীল দলের এমপিদের এক বৈঠকে থেরেসা মেও দেন।

গত ২০ মার্চ থেরেসা মে ইউরোপীয় কাউন্সিলের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড টাস্ককে ৯০ দিন বেক্সিট পিছিয়ে দেয়ার অনুরোধ করে একটি চিঠি লিখলে ১৪ দিন সময় দেওয়া হয়।

বিএম/রনী/রাজীব