ছোট ভাইয়ের প্রেমের বিরোধ মেটাতে গিয়ে কথিত বড় ভাইয়ের মৃত্যু

চট্টগ্রাম মেইল :

চট্টগ্রাম নগরীর বাকলিয়া থানার খালপাড় এলাকায় নবম শ্রেণীর এক শিক্ষার্থীর সাথে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে ওই এলাকার এইচএসসি শিক্ষার্থী অনিক। কিছুদিন সম্পর্ক টিকে থাকলেও সম্প্রতি নবম শ্রেণীর ওই ছাত্রীটি শ্রাবণ নামের আরেক কিশোরের সাথে নতুন করে সম্পর্ক তৈরি করে। ফলে ধীরে ধীরে অনিককে এড়িয়ে চলে ছাত্রীটি। তবে তাদের সম্পর্কের এ পরিণতি মোটেও মেনে নিতে নারাজ অনিক। শ্রাবণকে শাস্তি দেওয়ার জন্য অনিক প্ল্যান করে কয়েকদিন ধরে।

এরই মধ্যে শনিবার রাতে জয় নামের শ্রাবণের এক বন্ধু খাল পাড় এলাকায় গেলে তাকে আটকে রাখে অনিকে বন্ধুরা। খবরটি শ্রাবণের কানে গেলে তাদের বড় ভাই লোকমান হোসেন তার কয়েকজন বন্ধু নিয়ে তিনটি মোটর সাইকেলে করে খাল পাড় এলাকায় যায়।

শনিবার রাতেই শ্রাবণ-জয়দের পাড়া গোলপাহাড় এলাকার বড় ভাই লোকমানের সাথে অনিকদের কথা কাটাকাটি ও মারামারির ঘটনা ঘটে। মারামারির এক পর্যায়ে অনিকদের কথিত বড় ভাই সাইফুল্লাহ লোকমান হোসেনকে কয়েক রাউন্ড গুলি চালায়। এতে গুলিবিদ্ধ হয় লোকমান হোসেন। রাতে গুলিবিদ্ধ লোকমানকে হাসপাতালে আনা হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

ঘটনা সম্পর্কে জানতে চাইলে উপরোক্ত তথ্যগুলো বর্ণনা করেছেন নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার (দক্ষিণ) শাহ মো. আব্দুর রউফ। তিনি বলেন, ঘটনার পর থেকে অনিকদের কথিত বড় ভাই সাইফুল্লাহসহ উভয় পক্ষের লোকজন পলাতক রয়েছে। তাদের গ্রেফতারের চেষ্টায় পুরো এলাকায় রাতভর অভিযান চালিয়েছে পুলিশ। কয়েকজনকে গ্রেফতারের পর ঘটনার প্রকৃত রহস্য জানা যাবে বলে জানিয়েছেন অতিরিক্ত উপকমিশনার রউফ।

জানা যায়, শনিবার গভীর রাতে বাকলিয়া খালপাড় এলাকায় হত্যাকান্ডের ঘটনাটি ঘটে। গুলিবিদ্ধ লোকমান হোসেনকে শনিবার রাতেই চমেক হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেছে বলে তথ্য নিশ্চিত করেছেন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই শীলব্রত বড়ুয়া। তার কাছ থেকে জানা যায়, নিহত লোকমান হোসেন (৩৫), নগরীর গোলপাহাড় এলাকার বাদশা মিয়া রোডের পশুশালা এলাকায় থেকে একটি কুলিং কর্ণারের ব্যবসা করতেন।

বিএম/রাজীব সেন….