সরকার নয় বিএনপিই খালেদার স্বাস্থ্য নিয়ে তামাশা করছে : তথ্যমন্ত্রী

বিএম ডেস্ক : বেগম জিয়াকে নিয়ে সরকার নয়, বিএনপিই খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য নিয়ে তামাশা করছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক, তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, বিএনপি সকাল-বিকেলে সংবাদ সম্মেলন করে খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের টেম্পারেচার কত হলো, ৯৮ ডিগ্রি নাকি ৯৯ ডিগ্রি- এগুলো বলার মাধ্যমে তাকে তামাশার পাত্র বানিয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার (১১ এপ্রিল) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম লীগের দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

হাছান মাহমুদ বলেন, বিএনপি আন্দোলনের হুমকি দিয়েছে, আমরা ১০ বছর আন্দোলনের হুমকির মধ্যেই আছি। হুমকির মধ্যে থেকেই তিন তিনটি নির্বাচনে জয় লাভ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকার গঠন করেছেন। বিএনপির আন্দোলনের হুমকি হচ্ছে খাঁচায় আবদ্ধ রোগা সিংহের গর্জনে মত। যে গর্জনের কোনো কার্যকারিতা নেই। এই গর্জনে দর্শনার্থীরা পুলকিত হয়, আর হাততালি দেয়।

তিনি বলেন, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সকালে বেগম জিয়ার স্বাস্থ্য নিয়ে একবার সংবাদ সম্মেলন করেন। আবার বিকেলে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকার জন্য দলটির যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ সংবাদ সম্মেলন করেন।

তিনি বলেন, এ ধরনের গর্জনে দর্শকরা যেমন আনন্দ পায় তেমনি বিএনপির আন্দোলনের তর্জন-গর্জনেও দেশের মানুষ বিনোদন পায়।

তিনি বলেন, গতকাল দেখলাম বিএনপি একটি সংবাদ সম্মেলন করে বলছে সরকার বেগম জিয়ার প্যারোলে মুক্তি নিয়ে নাটক করছে। আমি বিএনপি নেতাদের বলবো আইন-কানুনের বিধিগুলোকে একটু ভালোভাবে পড়ুন। কাউকে প্যারোলে মুক্তি জোর করে দেয়া যায় না, প্যারোলের জন্য আবেদন করতে হয়, প্যারোল চাইতে হয়। সরকার জোর করে কাউকে প্যারোল দিতে পারে না। যিনি প্যারোল চান, তিনিই একমাত্র আবেদন করলে প্যারোল বিবেচনার সু্যোগ থাকে, অন্যথায় কোনো সুযোগ নেই।

ড. হাছান বলেন, বিএনপির রাজনীতি বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসার মধ্যে আটকে গেছে। তারাই তার চিকিৎসাসেবার মাধ্যমে রাজনীতি করে তামাশার নাটক করছে।

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান বলেন, বিএনপি নেত্রী বেগম জিয়ার হাঁটু ও কোমরের ব্যথা অনেক আগে থেকেই ছিল। এ ধরণের ব্যথা নিয়েই তিনি দু’বার দেশের প্রধানমন্ত্রী এবং বিএনপির মতো একটি বড় দলের চেয়ারপার্সনের দায়িত্ব পালন করেছেন।

সহযোগী অঙ্গসংগঠনের সঙ্গে বিএনপির আন্দোলন কৌশল নির্ধারণ প্রসঙ্গে হাছান মাহমুদ বলেন, আন্দোলনের কৌশল নির্ধারণ করতে করতেই ইতোমধ্যে ১০ বছর চলে গেছে। আর কত দিন লাগে এটা হলো দেখার বিষয়।

আয়োজন সংগঠনের সভাপতি আসাদুজ্জামান দুর্জয়ের সভাপতিত্বে সম্মেলনে আওয়ামী লীগ নেতা বলরাম পোদ্দার, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুণ সরকার রানা প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

বিএম/রনী/রাজীব