চলন্ত বাসে চবি ছাত্রীকে শ্লীলতাহানি চেষ্টার অভিযোগে মামলা : ক্যাম্পাসে সহপাঠীদের মানববন্ধন

চট্টগ্রাম মেইল : চট্টগ্রামে চলন্ত বাসে এক বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর শ্লীলতাহানি চেষ্টার অভিযোগে মামলা হয়েছে।

শুক্রবার (১২ এপ্রিল) বিকেলে কোতোয়ালি থানায় দায়ের করা মামলায় অজ্ঞাত পরিচয় বাস চালক ও সহকারিকে আসামী করা হয়েছে। মামলার অভিযোগে বলা হয়, বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ফেরার পথে নিউমার্কেট এলাকায় পৌছার পর ওই ছাত্রীকে বাসে একা পেয়ে বাসের সহকারি ও চালক শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে।

কোতোয়লী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, সকালে চবির ওই ছাত্রী থানায় এসে অজ্ঞাত বাসের চালক ও হেলপারকে আসামি করে মামলা করেছেন। অভিযুক্তদের গ্রেফতার করতে এবং শহর এলাকার ৩ নং রুটের বাসটি চিহ্নিত করতে পুলিশের কয়েকটি টিম অভিযানে নেমেছে। শীঘ্রই চালক ও হেলফারকে শনাক্ত করে গ্রেফতার পরবর্তী কঠোর শাস্থির ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলে জানিয়েছে ওসি মোহসিন।

এদিকে অভিযুক্ত বাস চালক ও সহকারীকে গ্রেফতারে দাবী করে আজ ক্যাম্পাসে মানববন্ধন পালন করেছে শিক্ষার্থীরা।

ঘটনা সম্পর্কে চবির  কয়েকজন শিক্ষার্থী জানান, গত বৃহস্পতিবার চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা থেকে নগরীর নিউমার্কেটের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা ৩নং রুটের বাসে উঠেন বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি প্রথম বর্ষের ছাত্রী নিলিমা (ছদ্ম নাম)। বাসটি নগরীর রিয়াজুদ্দিন বাজার এলাকায় পৌঁছালে ভুক্তভোগী ছাড়া সকল যাত্রী একে একে নেমে যায়। ছাত্রীটিকে একা পেয়ে হঠাৎ বাসটি তার রুট পাল্টে স্টেশন রোডের দিকে চলতে শুরু করে।

তখন মেয়েটি নিরাপত্তার স্বার্থে বাস চালককে বাস থামাতে বললে বাসের হেল্পার তার দিকে ধেয়ে যায় এবং তার গলায় ওড়না পেঁচিয়ে তার শ্বাসরোধ করার চেষ্টা করে, সেসময় দম বন্ধ হয়ে আসলে মেয়েটি আত্মরক্ষার্থে তার হাতে থাকা মোবাইল দিয়ে হেল্পারটিকে আঘাত করে চলন্ত বাস থেকেই লাফ দেয় এবং এক রিক্সাওয়ালার সাহায্যে শরীরে আঘাতের চিহ্ন নিয়ে বাসায় ফিরে।

জানা যায়, ঘটনার সে বাসের ড্রাইভারটিও মেয়েটিকে “মেয়েটাকে ধর” বলে হেল্পারকে উৎসাহ যোগাচ্ছিল।

এদিকে বাসটি চিহ্নিত করে চালক হেলপারকে আটক করতে পুলিশ কমিশনার মাহবুবুর রহমানকে ফোন করে অনুরোধ করেছেন চবি ভিসি অধ্যাপক ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী।

বিএম/রাজীব