সুদানের ক্ষমতা দখলকারী সামরিক কমান্ডারের পদত্যাগ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : সুদানের সাবেক প্রেসিডেন্ট ওমর আল-বশিরের পদত্যাগের পর ক্ষমতা গ্রহণকারী সামরিক কমান্ডার- জেনারেল আওয়াদ ইবনে আউফও পদত্যাগ করেছেন।

প্রবল গণ-অভ্যুত্থানের জের ধরে বৃহস্পতিবার পদত্যাগ করতে বাধ্য হন ৩০ বছর ধরে ক্ষমতায় থাকা ওমর আল-বশির। এরপর অভ্যুত্থানের নেতা ইবনে আউফ নিজেকে সামরিক কাউন্সিলের প্রধান ঘোষণা করেছিলেন।

কিন্তু বিক্ষোভকারীরা ক্ষমতার এই পালাবদল মেনে নিতে অস্বীকৃতি জানিয়ে বলেন, অভ্যুত্থানকারী নেতারা বশিরের ঘনিষ্ঠ ব্যক্তি হওয়ার কারণে তাদেরকেও সরে যেতে হবে। এ অবস্থায় ক্ষমতা গ্রহণের একদিনের মাথায় শুক্রবার রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে আওয়াদ ইবনে আউফ নিজের পদত্যাগের ঘোষণা দেন এবং লে. জেনারেল আব্দেল ফাত্তা আব্দেররহমান বুরহান তার স্থলাভিষিক্ত হন।

দ্রব্যমূল্যের অস্বাভাবিক ঊর্ধ্বগতির জের ধরে গত কয়েক মাস ধরে ওমর আল-বশিরের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ চলে আসছিল। বিক্ষোভ থেকে সৃষ্ট গোলযোগে অন্তত ৩৮ ব্যক্তির প্রাণহানি ঘটে।

সুদানে গত কয়েক মাস ধরে বিক্ষোভ চলে আসছিল
২০০০ সালে শুরু হওয়া দারফুর সংঘাতের সময় ইবনে আউফ সুদানের সামরিক কাউন্সিলের প্রধান ছিলেন। রাজধানী খার্তুমের রাজপথে অবস্থান করে বিক্ষোভরত জনতা আউফের পদত্যাগের ঘটনাকে স্বাগত জানিয়েছে। বিক্ষোভের অন্যতম আয়োজক সুদানের প্রফেশনাল্‌স অ্যাসোসিয়েশন বলেছে, ইবনে আউফের পদত্যাগকে বিক্ষোভকারীরা তাদের বিজয় হিসেবে দেখছেন। তারা বলছেন, সুদানের ক্ষমতা বেসামরিক সরকারের হাতে হস্তান্তর না করা পর্যন্ত তারা ঘরে ফিরে যাবেন না।

শুক্রবার সামরিক কাউন্সিলের একজন মুখপাত্র বলেছেন, সেনাবাহিনী ক্ষমতা চায় না বরং বিক্ষোভকারীরাই দেশের ভবিষ্যত নির্ধারণ করবেন। কিন্তু কোনোরকম গোলযোগ বা আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি সহ্য করা হবে না।

বিএম/রনী/রাজীব