রমনা বটমূলে চলছে বর্ষবরণ অনুষ্ঠান

বিএম ডেস্ক : রাজধানীর রমনার বটমূলে ছায়ানটে সূর্যকে আহ্বানের মধ্য দিয়ে শুরু হলো পহেলা বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ।

রোববার সকালে রাগ ললিতের মধ্য দিয়ে সূর্য্যকে আহ্বান করা হয়। অসীম কুমার পরিবেশনায় এই রাগ ললিত চলে প্রায় ১৩ মিনিট।

রাগ ললিতের পর সম্মিলিতভাবে গাওয়া হয় ‘মোরে ডাকি লয়ে যাও মুক্তদ্বারে তোমার বিশ্বের সভাতে/ আজি এ মঙ্গলপ্রভাতে…’ গানটি। এরপর ‘আপনারে দিয়ে রচিলি রে কি এ আপনারই আবরণ!/খুলে দেখ দ্বার, অন্তরে তার আনন্দনিকেত…’সহ দুটি পরপর একক সংগীত পরিবেশিত হয়। এরপর আবার সম্মিলিত সংগীত। এভাবে চলতে থাকে ছায়ানটের অনুষ্ঠান। আবৃত্তি করা হয় কবিতা।

সংস্কৃতি সংগঠন ছায়ানটের শিক্ষার্থী-প্রাক্তনী-শিক্ষক নিয়ে, ছোট বড় মিলিয়ে এবারের অনুষ্ঠানে সম্মেলক গান পরিবেশন করেন প্রায় শখানেক শিল্পী। অনুষ্ঠানে থাকছে ১৩টি একক, ১৩টি সম্মেলক গান এবং ২টি আবৃত্তি।

ছায়ানটের আহবান অনুযায়ী রবীন্দ্র রচনা থেকে বেছে নেওয়া হয়েছে আবৃত্তি দুটি। একই ধারায় গানগুলি নির্বাচন করা হয়েছে কাজী নজরুল ইসলাম, অতুলপ্রসাদ সেন, দ্বিজেন্দ্রলাল রায়, রজনীকান্ত সেন, লালন শাহ্, মুকুন্দ দাস, অজয় ভট্টাচার্য, শাহ্ আবদুল করিম, কুটি মনসুর, সলিল চৌধুরী ও রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের রচনা থেকে। এমনটাই জানিয়েছন ছায়ানট কর্তৃপক্ষ।

নববর্ষকে বরণ করতে ১৯৭৪ সাল থেকে ছায়ানটে এই আয়োজন চলছে। প্রতি বছরের মতো একটি প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন হয়। এ বছরের প্রতিপাদ্য ‘অনাচারের বিরুদ্ধে জাগ্রত হোক শুভবোধ’।

ছায়ানটের মতো আজ সারা দেশেই চলছে নববর্ষকে বরণ। সারা দেশে দিনব্যাপী আয়োজন করা হয়েছে নানা অনুষ্ঠানের। এ ছাড়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা থেকে বের হয়েছে ঐতিহ্যবাহী মঙ্গল শোভাযাত্রা।

বিএম/রনী/রাজীব