এলআরবি’র নামের পরিবর্তন হচ্ছেনা

বিনোদন ডেস্ক : গত বছর সবাইকে কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে চলে যান উপমহাদেশের বিখ্যাত গিটারিস্ট বাংলা ব্যান্ড সংগীতের ইতিহাসের কিংবদন্তি শিল্পী আইয়ুব বাচ্চু। যিনি ছিলেন লাভ রানস ব্লাইন্ড (এলআরবি) ব্যান্ডের প্রতিষ্ঠাতা এবং মূল ভোকাল। ব্যান্ড সংগীতের এই কিংবদন্তি চলে যাওয়াতে যেন থমকে গিয়েছিল সবকিছু।

চলতি মাসের গত ৫ এপ্রিল রাজধানীর একটি রেস্টুরেন্টে আনুষ্ঠানিকভাবে পুনর্গঠিত ব্যান্ড এলআরবির নতুন লাইন আপ ঘোষণা করা হয়। সেখানে কণ্ঠশিল্পী বালামকে মূল ভোকাল হিসেবে পরিচয় করিয়ে দেওয়া হয়।

সেখানে নব গঠিত এলআরবি ব্যান্ডের সদস্যরা এলআরবি নামটি পরিবর্তন করে ব্যান্ডের নাম ‘বালাম এন্ড দ্য লিগ্যাসি’ (Balam & The legacy) নামে পরবর্তী ঘোষণা না দেওয়া পর্যন্ত কার্যক্রম চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন।

এই ব্যান্ডে বালামের যুক্ত হওয়া এবং তার কিছুদিন পরেই ব্যান্ডের নাম পরিবর্তন হওয়া সবকিছুই যেন কেমন মনে হচ্ছিল শ্রোতা-দর্শকদের। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সমালোচনার ঝড় বয়ে চলে।

মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) আইয়ুব বাচ্চুর একমাত্র ছেলে আহনাফ তাজওয়ার আইয়ুব ফেসবুকে স্ট্যটাস দেন। সেখানে তিনি এলআরবির সদস্যদের অনুরোধ করেন এলআরবির নামেই গানগুলো যেন পারফর্ম করেন তারা।

আইয়ুব বাচ্চুর পরিবার ও এলআরবি ব্যান্ডের সদস্যদের সমঝোতার মাধ্যমেই ব্যান্ডের নাম অপরিবর্তিত থাকছে বলেই জানান এলআরবি ব্যান্ডের ম্যানেজার শামীম আহমেদ।

শামীম বলেন, ‘এলআরবির নাম পরিবর্তন হয়ে ‘বালাম অ্যান্ড দ্য লিগেসি’ হচ্ছে না। আমরা এলআরবি নিয়েই সামনের দিকে এগিয়ে যাবে। যেই সমস্যাগুলো হয়েছিল সেটা ঠিক হয়ে গেছে। এলআরবি নাম নিয়ে বাচ্চু ভাইয়ের পরিবারের কোনও আপত্তি জেনে খুব খুশি হয়েছি। আমরা শিগগিরই সবাই মিলে আনুষ্ঠানিক ভাবে ঘোষণা করবো বিষয়টি।’

শামীম আহমেদ বলেন, আমাদের ভাতিজা আহনাফ চায় না যে তার বাবার ব্যান্ডের নামটা পরিবর্তিত হোক। তাদের পরিবারের সম্মতিতে এবং আমরা ব্যান্ড সদস্যরা সমঝোতা করে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি যে ব্যান্ডের নাম পরিবর্তন হবে না, সেটা ‘এলআরবি’-ই থাকবে।

তিনি আরও বলেন, আইয়ুব বাচ্চুর স্মৃতি বুকে নিয়েই সামনে এগিয়ে যাব। আমাদের ব্যান্ডের গিটারিস্ট মাসুদ বাড়িতে গিয়েছেন, তার মা অসুস্থ। তিনি আসলে আমরা এই বিষয়টা ঘোষণা দিব।

শামীম আরও বলেন, ‘বসের (আইয়ুব বাচ্চু) পরিবার ও আলাদা নই। আমরা বায়োলজিক্যালি আইয়ুব বাচ্চু ভাইয়ের উত্তরাধিকার না হয় তো। কিন্তু আমরা তার চেয়ে কম কিছুই না। কেউ ৩৪ বছর, কেউ ২৬ বছর কেউ ১৬ বছর আমরা তার সঙ্গে কাটিয়েছি। বাচ্চু ভাইয়ের পরিবারের মত নিয়েই এলআরবি পরিবার এগিয়ে যাচ্ছে সামনে। তাদের প্রতি আমাদের ভালোবাসা আছে এবং সব সময় থাকবে।’

প্রসঙ্গত, উচ্চশিক্ষার জন্য আহনাফ তাজোয়ার আইয়ুব এখন কানাডায় অবস্থান করছেন। ইউনিভার্সিটি অব ব্রিটিশ কলাম্বিয়ায় পড়াশোনা করছেন তিনি।

‘এলআরবি’র বর্তমান লাইন আপ-শামীম-ব্যান্ড ম্যানেজার, ভোকাল-বালাম, মাসুদ-গিটার, স্বপন-বেস আর রোমেল-ড্রামস।

বিএম/রনী/রাজীব