জায়ানের লাশ আসবে কাল,পিতার দুই পা ড্যামেজ

বিএম ডেস্ক : শ্রীলঙ্কায় ভয়াবহ সিরিজ বোমা হামলায় আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিমের নাতি জায়ানের লাশ আগামীকাল দেশে আনা হবে।

সোমবার (২২ এপ্রিল) বেলা সাড়ে ১১টায় শেখ সেলিমের বনানীর বাসা থেকে বের হয়ে এসে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন শিল্পমন্ত্রী।

তিনি বলেন, শেখ সেলিমের নাতি জায়ান মারা গেছে কিন্তু জামাতা এখনো সেভ আছেন। তবে তার দুটি পা ড্যামেজ হয়ে গেছে। এ সময় আগামী কালকের (মঙ্গলবার) মধ্যে জায়ানের লাশ দেশে এসে যাবে বলে জানান তিনি।

এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, শেখ সেলিমের মেয়ে সোনিয়াও এখন পর্যন্ত জানে না যে তার ছেলে নেই। প্রধানমন্ত্রী বিষয়টি দেখছেন। শ্রীলঙ্কার সরকারের সঙ্গে কথা হচ্ছে। আমাদের অ্যাম্বাসির লোকজন যোগাযোগ করছেন।

শেখ সেলিমের ব্যক্তিগত সহকারী ইমরুল হক বলেন, জায়ানের মরদেহ দেশে আনতে এই মুহূর্তে শ্রীলঙ্কায় অবস্থান করছেন শেখ সেলিমের স্ত্রী এবং দুই ছেলে শেখ ফজলে ফাহিম ও শেখ ফজলে নাঈম। জায়ান চৌধুরী সোমবার শ্রীলঙ্কায় বোমা বিস্ফোরণে নিহত হন। তার বাবা মশিউল হক গুরুতর আহতাবস্থায় কলম্বোর একিটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তার শারীরিক অবস্থা ভালো না থাকায় এ মুহূর্তে দেশে আনা যাচ্ছে না।

তিনি বলেন, মশিউল হক চৌধুরী সপরিবারে কলম্বোতে ঘুরতে গিয়েছিলেন। সেখানে একটি রেস্টুরেন্টে খেতে গিয়ে তারা বোমা হামলার শিকার হন। বোমা হামলার পর জায়ানের খবর পাওয়া যায়নি। পরে একটি হাসপাতালে তার মরদেহ পাওয়া যায়।

শ্রীলঙ্কার বোমা হামলায় নিহত জায়ান চৌধুরীর দাদাবাড়ি সিলেটের সুনামগঞ্জের ভাটিপাড়ায়। জায়ানের বাবা মশিউল হক চৌধুরী প্রিন্স এম এইচ চৌধুরী পারুলের ছেলে। প্রিন্স আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিমের মেয়ে শেখ সোনিয়ার স্বামী।

জায়ান প্রিন্স-সোনিয়া দম্পতির বড় ছেলে। মা-বাবা ও ছোট ভাইয়ের সঙ্গে ছুটি কাটাতে জায়ানরা শ্রীলংকায় গিয়েছিল।

প্রসঙ্গত, শ্রীলঙ্কায় রবিবারের ভয়াবহ সিরিজ বিস্ফোরণে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৯০ জনে দাঁড়িয়েছে। আহত হয়েছেন আরও ৫০০ জন। হবে হামলার দায় এখনো কেউ স্বীকার করেনি।

বিএম/রনী/রাজীব