শ্রীলঙ্কায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৯০,আটক ২৪

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : শ্রীলঙ্কায় তিনটি চার্চ ও তিনটি পাঁচ তারকা হোটেলসহ আটটি স্থানে বোমা হামলায় মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েই চলছে। টানা আট বিস্ফোরণে এখন পর্যন্ত ২৯০ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। আহত হয়েছে ৫ শতাধিক মানুষ।

সোমবার বিবিসিতে প্রকাশিত এক প্রতিবেদন থেকে এ কথা জানা যায়।

এসব হামলায় এখন পর্যন্ত সন্দেহভাজন ২৪ জনকে আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির পুলিশ বিভাগ। কিন্তু কারা এসব হামলা চালিয়েছে শ্রীলঙ্কান সরকার এখন পর্যন্ত তা চিহ্নিত করতে পারেনি। এ যাবত কেউ এ হামলার দায় স্বীকার করেনি।

বিবিসি জানিয়েছে, ৫০০ জনেরও বেশি লোককে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের মধ্যে শতাধিক লোকের অবস্থা আশঙ্কাজনক। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়বে।

এদিকে, হামলাকে কেন্দ্র করে যেন কোনো ভুল তথ্য বা গুজব ছড়াতে না পারে সে জন্য দেশটিতে ফেসবুক, হোয়াটস অ্যাপসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বর্তমানে বন্ধ রাখা হয়েছে। জারি করা হয়েছে কারফিউ। সকাল থেকে দেশটির বিভিন্ন শহরে সেনাবাহিনীর উপস্থিতি দেখা গেছে।

গতকাল সকাল সাড়ে ৮টার দিকে প্রথমে কলম্বোর কচ্ছিকাড়ের সেন্ট অ্যান্থোনি চার্চে একটি বিস্ফোরণ ঘটে। একটু পরই কাতানার কাটুয়াপিটিয়ার একটি চার্চে আরও একটি বিস্ফোরণ হয়। এরপর সাংরিলা হোটেল এবং কিংসবারি হোটেলে বিস্ফোরণ হয় বলে পুলিশ জানিয়েছে।

অন্য বিস্ফোরণটি ঘটে নেগোম্বো শহরের বাত্তিকালোয়া চার্চে। তবে আরও একটি হোটেলে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটলেও তার নাম জানা যায়নি। এরপর দুপুরে একটি চিড়িয়াখানার সামনের হোটেলে ও একটি সড়কের সামনে বিস্ফোরণ ঘটে।

স্থানীয় পুলিশের বরাত দিয়ে রয়টার্স জানিয়েছে, কেবল সেইন্ট সেবাস্টিয়ানের গির্জাতেই অন্তত ৭০ জনের মৃত্যু হয়েছে। বাত্তিকালোয়ায় অন্তত ৪৭ জনের লাশ উদ্ধারের খবর দিয়েছে স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলো।

শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবনের কাছে সিনামন গ্র্যান্ড হোটেলের রেস্তোরাঁয় বিস্ফোরণে অন্তত একজন নিহত হয়েছেন বলে হোটেলটি এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন।

বোমা হামলায় হতাহতের ঘটনায় দেশজুড়ে কারফিউ জারি করা হয়েছে। মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন বলছে, অনির্দিষ্টকালের জন্য প্রতিদিন সন্ধ্যা ৬টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত পুরো দেশে কারফিউ বলবৎ থাকবে। আগামী সোম ও মঙ্গলবার সরকারি ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।

ঘটনায় দেশবাসীকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমাসিংহে। জাতির উদ্দেশে তিনি বলেছেন, আমাদের জনগণের ওপর আজ যে কাপুরুষোচিত হামলা চালানো হয়েছে তার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি।

রনিল বলেন, এই দুঃখজনক সময়ে আমি শ্রীলঙ্কার নাগরিকদের ঐক্যবদ্ধ ও শক্ত থাকার আহ্বান জানাচ্ছি। দয়া করে যাচাই বাছাই না করে কোনো গুজব ছড়াবেন না। সরকার অবিলম্বে ব্যবস্থা নিচ্ছে।

বিএম/রনী/রাজীব