নিউজিল্যান্ডের মসজিদে সাম্প্রতিক হামলার প্রতিশোধ নিতেই শ্রীলঙ্কায় হামলা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : নিউজিল্যান্ডের মসজিদে সাম্প্রতিক হামলার প্রতিশোধ নিতেই শ্রীলঙ্কায় ‘ইস্টার সানডে’ পালনরতদের ওপর হামলা চালানো হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন দেশটির এক মন্ত্রী। তার বিশ্বাস, হামলায় দেশীয় দুটি ইসলামিক গোষ্ঠী জড়িত ছিলো।

আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা রয়টার্স বলছে, শ্রীলঙ্কার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের কনিষ্ঠ মন্ত্রী রুয়ান বিজয়বর্ধন দেশটির জাতীয় সংসদে বলেন, “প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে যে, নিউজিল্যান্ডের মসজিদে হামলার প্রতিশোধ নিতেই এই হামলা চালানো হয়েছে।”

রবিবার একের পর এক বিস্ফোরণে কেঁপে ওঠে শ্রীলঙ্কার রাজধানী কলম্বো।প্রাণ গিয়েছে প্রায় তিন শতাধিক মানুষ। মঙ্গলবার জাতীয় শোক দিবস পালন করে ভারত মহাসাগরের এই দ্বীপরাষ্ট্র।

তিন মিনিটের জন্য নীরবতা পালন করে গোটা দেশ। গত রবিবার সকাল সাড়ে আটটার সময়ে হামলা হয়েছিল। নীরবতা পালনের পাশাপাশি বিভিন্ন সরকারি দপ্তরেও জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত অবস্থায় রাখা হয়।

নীরবতা পালনের কিছুটা পরেই শ্রীলঙ্কা পুলিশের মুখপাত্র বলেন, মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৩১০ জন। বিস্ফোরণে আহত হওয়ার অনেকেই হাসপাতালে ভর্তি হন। পরে তাঁদের মধ্যে কয়েকজনের মৃত্যু হয়েছে।

হামলায় নিহত কয়েকজন বিদেশি নাগরিকের শেষকৃত্য আজ সম্পন্ন হয়েছে। পাশাপাশি সোমবার রাত থেকেই গোটা দেশে জরুরি অবস্থা জারি হয়েছে। হামলার কারণের পাশাপাশি প্রশাসনের অনুমান জঙ্গি সংগঠন আইএস এর একটি সহযোগী সংগঠন এই হামলা চালিয়েছে।

এসময় জামিয়াতুল মিল্লাতু ইব্রাহিম নামের স্থানীয় একটি ধর্মীয় গোষ্ঠীর নাম উল্লেখ করে তিনি বলেন, “জেএমআই’কে সঙ্গে নিয়ে ন্যাশনাল তৌহিদ জামাত (এনটিজে) এই হামলা চালিয়েছে।”

উল্লেখ্য, বিশ্বব্যাপী ‘ইস্টার সানডে’ পালনের দিনে (২১ এপ্রিল) শ্রীলঙ্কার রাজধানী কলম্বো এবং শহরতলির তিনটি গির্জা ও দেশের বড় চার হোটেলে ভয়াবহ বোমা হামলার চালানো হয়। এখন পর্যন্ত এ ঘটনায় নিহত ব্যক্তির সংখ্যা বেড়ে ৩১০-তে পৌঁছেছে। এছাড়াও হামলায় ৫০০ জনেরও বেশি মানুষ আহত হয়েছেন।

বিএম/রনী/রাজীব