ঘি’র উপর ভাসছে হাটহাজারী!

চট্টগ্রাম মেইল : চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলায় গত কয়েকমাসে অভিযান চালিয়ে বেশ কয়েকটি ভেজাল ঘি কারখানা সিলগালা করলেও থেমে নেয় বিকিকিনি। ফের নতুন কোন স্থানে প্রতিষ্ঠান স্থাপন করে অবাধে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে অসাধু ঘি ব্যবসায়িরা। এর প্রমান মেলে উপজেলার বিভিন্ন হাট বাজারে ভ্রাম্যমান অভিযান পরিচালনায়।

সর্বশেষ বৃহস্পতিবার দুপুরে হাটহাজারী পৌরসভার আল করিম কাঁচা বাজার এবং কাচারি রোড এলাকার কয়েকটি মুদি দোকানে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে উদ্ধার হয় হাজারো লিটার ভেজাল ঘি। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমিনের নের্তৃত্বে পরিচালিত এ অভিযানে জব্দকৃত ঘিগুলো পৌরসভার ময়লা ডাম্পিং গ্রাউন্ডে নিয়ে পোড়ানো হয়।

বৃহস্পতিবারের অভিযানে আল করিম কাঁচা বাজারের আল ইনসাফ স্টোরকে দোকানে ভেজাল বাঘা বাড়ি ঘি বিক্রির উদ্দ্যেশে রাখার অপরাধে ৩০ হাজার টাকা, একই অভিযোগে কাচারি রোডের হাজী জেবল স্টোরকে ২০ হাজার এবং হাফেজ জিন্নাহ স্টোরকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। তাছাড়া দুটি বাজারের বিভিন্ন দোকানে পৃথক ভাবে অভিযান পরিচালনা করে বাঘাবাড়ি ঘিসহ বিভিন্ন ব্রান্ডের অন্তত ১ হাজার লিটার ঘি জব্দ করে তা ধ্বংস করা হয়।

অভিযান সম্পর্কে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমিনের কাছে জানতে চাইলে তিনি হাসির ছ্বলে বলেন, ঘি’র উপরেই যেন ভাসছে হাটহাজারী। বলেন, গত কয়েক মাসে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে সাঁড়াশি অভিযানের পর অসাধু ব্যবসায়িরা তাদের কারখানার স্থান পরিবর্তণ করে অন্যত্র গিয়ে প্রশাসনের আড়ালে ব্যবসা পরিচালনা করছে। এমন অনেক অভিযোগে এবার উপজেলার হাটবাজারের দোকানগুলোতে অভিযান পরিচালনা শুরু করি।

তিনি বলেন, মূলত বেশি লাভের আশায় এবং অসাধু ঘি কারখানার মালিকদের নানা লোভনীয় অফারে এসব ক্ষতিকর উপাদান দিয়ে তৈরি ভেজাল বাঘা বাড়ি ঘিসহ বিভিন্ন ব্রান্ডের প্যাকেটে বিক্রি করে আসছে। সাধারণ দোকানিদের এর আগেও অনেকবার সতর্ক করার পরও তার বিক্রি অব্যাহত রাখে। ফলে আজ বৃহস্পতিবার অভিযান চালিয়ে কয়েকটি দোকানিকে জরিমানা করার পাশাপাশি অন্যান্য দোকানিদের শেষ বারের মত সতর্ক করে দেওয়া হয়। জব্দ করা হয় প্রায় ১ হাজার লিটার ভেজাল বাঘা বাড়ি ঘি। পরে তা পৌরসভার ময়লা ডাম্পিং গ্রাউন্ডে এনে পোড়ানো হয়।

বিএম/রাজীব সেন…

আরো সংবাদ পড়ুন : বাবুর্চির ইশারায় চলে নকল ঘি! ব্রান্ডের প্যাকেট ডুকছে রঙ, পামওয়েল, সুজি, গাম!