জয়ের ধারায় ফিরলো কলকাতা

ক্রীড়া ডেস্ক : হয়ত সর্বোচ্চ রান তাড়ার রেকর্ডটাই করতে যাচ্ছিল মুম্বাই। যদি পান্ডিয়াকে সঙ্গ দিতে পারতেন কেউ একজন। কিন্তু ব্যাটিংয়ে দুর্দান্ত রাসেল বোলিংয়েও কলকাতার জন্য হয়ে আসলেন অবতার হয়ে।

মুম্বাইয়ের অন্য ব্যাটসম্যানদের আউট করে দিয়ে কলকাতাকে এনে দিলেন ৩৪ রানের দুর্দান্ত জয়। আর টানা ৬ ম্যাচ হারের পর আবারো জয়ের ধারায় ফিরলো কলকাতা।

কলকাতার দেওয়া ২৩৩ রানের বিশাল জবাবে ব্যাট করতে নেমে যখন সবাই একের পর এক আউট হয়ে ফিরে যাচ্ছিলেন তখন নাইট স্পিনারদের উপর টর্নেডো চালিয়ে ৩৪ বলে ৯১ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস উপহারপ দিলেন হার্দিক। কিন্তু ব্যাট হাতে ঝড় তোলা রাসেল বল হাতেও পারফরম্যান্স করলেন দুর্দান্ত। তাতেই পান্ডিয়া ঝড়ের পরেও শেষ পর্যন্ত ৭ উইকেট হেরে ১৯৮ রানে থামে মুম্বাই। ফলে ৩৪ রানের দুর্দান্ত জয় পায় কলকাতা।

কিপটে বোলিংয়ে ৪ ওভার বোলিং করে ২৫ রানে ২ উইকেট নেন এন্ড্রো রাসেল।

এর আগে ইডেন গার্ডেনে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের বিরুদ্ধে আগে ব্যাটিং করে ২০ ওভারে ২৩২ রানের বড় লক্ষ্য দাঁড় করিয়েছে কলকাতা। যেখানে ৪০ বলে ৮০ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেছেন রাসেল।

প্লে-অফের টিকিট পেতে আজকের ম্যাচে জয়ের বিকল্প নেই কলকাতার। এমন সমীকরণ সামনে নিয়ে মাঠে নেমে দারুণ সূচনাই করেছিল কলকাতা। ক্রিস লিন ও শুভমান গিল ওপেনিং জুটিতে ৯৬ রান করেন। ২৯ বলে ৫৪ রানে লিন ফিরে গেলেও থামেননি গিল। ৪৫ বলে ৭৬ রানে থামেন তিনি।এরপরই ক্রিজে আসেন রাসেল।

ইডেন গার্ডেনের দর্শক তখন হুড়মুড় করে ওঠে রাসেলের ব্যাটিং দেখার জন্য। তবে প্রথম ১১ বলে রাসেলের রান ছিল ৯। তখন দর্শকরা যেন একটু বিরক্তই হচ্ছিল। কিন্তু রাসেল যেন বলতে চাইছিলেন ‘লেকচার আভি বাকি হ্যা মেরা দোস্ত’। হলোও তাই।

পরের ২৯ বলে ৭১ রান করেছেন ক্যারিবীয় দানব। মোট ৪০ বলে অপরাজিত ছিলেন ৮০ রানে। যেখানে চারের মার ছিল ৬টি এবং ছক্কা মেরেছেন ৮টি।

এদিকে চলতি আইপিএলে এর আগে বেঙ্গালুরুর বিপক্ষেদলীয় সর্বোচ্চ ২৩১ রান করে সাকিব আল হাসানদের সানরাইজার্স হায়দরাবাদ।

তবে আইপিএলের ১২আসরের ইতিহাসে সর্বোচ্চ ২৬৩ রানের ইনিংস গড়ে বিরাট কোহলির নেতৃত্বাধীন রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু। ২০১৩ সালে পুনে ওয়ারিয়র্সের বিপক্ষে ৫ উইকেটে এই রেকর্ডগড়ে বেঙ্গালুরু।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

কলকাতা নাইট রাইডার্স ২৩২/২, ২০ ওভার
রাসেল ৮০*, গিল ৭৬, লিন ৫৪
চাহার ১/৫৪, হার্দিক ১/৩১

মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স ১৯৮ /৭, ২০ ওভার
হার্দিক ৯১, যাদব ২৬, ক্রুনাল ২৪
রাসেল ২/২৫, গার্নি ২/৩৭, নারাইন ২/৪৪

ফল: কলকাতা নাইট রাইডার্স ৩৪ রানে জয়ী

বিএম/রনী/রাজীব