ঘন্টায় ৮০ থেকে ১০০ কি.মি. গতিতে বাংলাদেশে প্রবেশ করবে ফণী

কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ফণী বাংলাদেশে আঘাত হানবে। তবে এর তীব্রতা হবে ভারতের চেয়ে প্রায় অর্ধেক। আবহাওয়া অধিদফতর এ তথ্য জানিয়েছে।

শুক্রবার (৩ মে) আবহাওয়া অধিদফতরের পরিচালক শামছুদ্দীন আহমেদ জানান, ওড়িশা রাজ্যে ২০০ কিলোমিটার গতিবেগে ছোবল মারা ফণী দুর্বল হয়ে বাংলাদেশে আসবে ৮০ থেকে ১০০ কিলোমিটার গতিবেগ নিয়ে।

আবহাওয়া অধিদফতরের পরিচালক আরও জানান, সন্ধ্যার দিকে বাংলাদেশে ফণী আছড়ে পড়বে। এর প্রভাব থাকতে পারে দুইদিন। এর প্রভাবে আজ-কাল দিনভর বৃষ্টি থাকবে।

প্রলয়ঙ্করী ঘূর্ণিঝড় ফণী সকাল (৩ মে) ৯টার দিকে ভারতের ওড়িশা রাজ্যে আঘাত হেনেছে। ওড়িশা থেকে এটি পশ্চিমবঙ্গের দিকে এগোবে। পশ্চিমবঙ্গে আঘাত হানার পর এটি আছড়ে পড়বে বাংলাদেশ।

এটি শুক্রবার (৩ মে) বিকেল বা সন্ধ্যার দিকে বাংলাদেশের উপকূলীয় অঞ্চলে আঘাত হানবে। প্রথমে খুলনাঞ্চলে আঘাত হানবে।

এই ঘূর্ণিঝড়ে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ‘কেউ কেউ বলছে এটি সিডর বা আইলার মতো হবে কিনা। তাদের জন্য বলছি ফণী এসব ঘূর্ণিঝড়ের মত শক্তিশালী নয়। এটি ভারতে এখন যেভাবে আঘাত হানছে সে তুলনায় অপেক্ষাকৃত অর্ধেক শক্তি কমে যাবে। এটির প্রভাবে দেশে গাছপালার ক্ষতি হতে পারে। তবে, প্রাণহানীর শঙ্কা শূন্য শতাংশ।

যেহেতু ঘুর্ণিঝড়টি দুর্বল হয়ে যাচ্ছে সে ক্ষেত্রে জলোচ্ছ্বাসের প্রভাব কেমন হবে সেটি দুপুরের দিকে বলা যাবে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়া অধিদফতরের পরিচালক সামছুদ্দিন আহমদ

বিএম/রনী/রাজীব