আসছেন চ্যান্সেলর চেরী ব্লেয়ার
এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইম্যানের ৭ম সমাবর্তন ১১ মে

চট্টগ্রামে অবস্থিত আর্ন্তজাতিক বিশ্ববিদ্যালয় এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইম্যান (এ.ইউ.ডব্লিউ)-এর ৭ম সমাবর্তন আগামী ১১ মে অনুষ্ঠিত হচ্ছে চট্টগ্রামের রেডিসন ব্লু বেভিউ হোটেলে।

সমাবর্তনে সভাপতিত্ব করবেন এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইম্যান এর চ্যান্সেলর চেরী ব্লেয়ার।

এবারের সমাবর্তনে বাংলাদেশসহ এশিয়া ও মিডলইস্ট এর দেশ সমূহের ১০০ জন শিক্ষার্থীকে গ্র্যাজুয়েট সম্মাননা সার্টিফিকেট প্রদান করা হবে।

উক্ত দেশ সমূহ হলো ভারত, পাকিস্তান, আফগানিস্তান, মায়ানমার, নেপাল, ফিলিস্তিন, যুক্তরাষ্ট্র, কম্বোডিয়া, শ্রীলংকা, ভিয়েতনাম, ভূটান এবং বাংলাদেশ।

শনিবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের কনফারেন্স হলে এক মিট দ্যা প্রেস অনুষ্ঠানে সমাবর্তনের বিস্তারিত তুলে ধরেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিষ্ট্রার ড. ডেভ ডোল্যান্ড ।

মিট দ্যা প্রেস অনুষ্ঠানে জানানো হয়, সমাবর্তন বক্তা হিসেবে উপস্থিত থাকবেন আফগানিস্থানের প্রেসিডেন্টের অবকাঠামো, মানব সম্পদ উন্নয়ন ও প্রযুক্তি বিষয়ক প্রধান উপদেষ্টা ও অর্থমন্ত্রী প্রফেসর ড. মুহাম্মদ হুমায়ন কাইয়ুমী এবং ২০১৬ সালে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ বেসামরিক খেতাব “স্বাধীনতা দিবস পুরস্কার ” প্রাপ্ত বাংলাদেশের প্রখ্যাত রবীন্দ্র সংগীত শিল্পী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃত্যকলা ডিপার্টমেন্টের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান প্রফেসর রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা। পাশাপাশি এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইম্যান এর পক্ষথেকে সমাবর্তন বক্তা প্রফেসর মুহাম্মদ হুমায়ন কাইয়ুমীকে “ডক্টর অফ লজ” এবং প্রফেসর রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যাকে “ “ডক্টর অফ আর্টস” সম্মান সূচক ডিগ্রী প্রদান করা হবে।

মিট দ্যা প্রেস অনুষ্ঠানে এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইম্যান এর মাননীয় ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. র্র্নিমলা রাও বলেন “ প্রফেসর ড. মুহাম্মদ হুমায়ন কাইয়ুমী এবং প্রফেসর রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইম্যান (এ.ইউ.ডব্লিউ) চট্টগ্রামের ৭ম সমাবর্তনে তাদের নিজ নিজ ক্ষেত্রে অসাধারণ কার্যক্রম ও অর্জন সবার সামনে তুলে ধরবেন।

সমাবর্তনে যে সমস্ত তরণীরা গ্রাজুয়েট সার্টিফিকেট অর্জন করবে তারা তাদের মাঝে অনন্য “রোল মডেল” ব্যক্তিদের সাহচর্য্য পাবে ও তাদের মত অভিষ্ঠ লক্ষ্য অর্জনে সাহসী হয়ে উঠবে ।”

প্রসঙ্গস ২০০৮ সালে চট্টগ্রামে এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইম্যান (এ.ইউ ডব্লিউ) যাত্রা শুরু করে ।

বিশ্ববিদ্যালয়টি এতদঅঞ্চলের প্রথম শিক্ষা প্রতিষ্ঠান যেটি আর্ন্তজাতিক পর্যায়ে নারীদের শিক্ষা ও নেতৃত্ব উন্নয়ন ও বিকাশে অবদান রাখছে, যার শেকড় রয়েছে এশিয়ার জনগণের আকাঙ্খা ও প্রত্যাশা। বর্তমানে বিশ্বের ১৫ টি দেশের মেয়েরা এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইম্যান (এ.ইউ ডব্লিউ) এ অধ্যায়ন করছে।

এই বিশ্ববিদ্যালয়টি এতদঅঞ্চল তথা এশিয়ার নারীদের নারী নেতৃত্ব,উদ্যোক্তা এবং সমাজ পরিবর্তনের অবদানের জন্য নারী নেটওয়ার্ক তৈরি করার জন্য অসাধারণ ভাবে সহযোগিতা করে আসছে। পাশাপাশি এটি এমন সব নারীদের জন্য কাজ করছে ,যাদের মধ্যে রয়েছে অসাধারণ শিক্ষার সম্ভাবনা, সাহসী মনোভাব এবং সকল প্রকার অন্যায় অবিচারের বিরুদ্ধে গিয়ে সমাজ বির্নিমানে নিজেদের তৈরি করার অপার আগ্রহ।

এই বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রীদের মধ্যে বেশীর ভাগই হলো তাদের পরিবারের ১ম সন্তান যে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত পড়াশোনা করেছে । বিশ্ববিদ্যালয়ের ৯৮% ছাত্রী বিশ্বের ১০০% বৃত্তি বা প্রায় ১০০% বৃত্তি নিয়ে পড়া লেখা করে আসছে । এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইম্যান (এ.ইউ ডব্লিউ) এর বেশির ভাগ ছাত্রী তাদের নিজ নিজ দেশে বেসরকারী ক্ষেত্রে সুনামের সাথে কাজ করে আসছে । ২৫% ছাত্রী উচ্চতর শিক্ষার জন্য সুযোগ গ্রহন করেছে।

এই বিশ্ববিদ্যালয় হতে স্নাতক ডিগ্রী প্রাপ্ত ছাত্রীরা বা ইতিপূর্বে অধ্যয়নরত ছাত্রীরা বিশ্বের বড় বড় নামী দামি বিশ্ববিদ্যালয় যেমন:- স্ট্যানফোর্ড,অক্সফোর্ড,কলম্বিয়া, ব্র্যান্ডে,সারে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ পেয়েছে ।

বিএম