ঘূর্ণিঝড় ফণী’র প্রভাব
চট্টগ্রামে বৈদ্যুতিক খুঁটি ও গাছ ভেঙ্গে পড়েছে সড়কে

চট্টগ্রাম মেইল : ঘূর্ণিঝড় ফণী’র প্রভাবে চট্টগ্রাম নগরী ও আশপাশের এলাকার উপর দিয়ে বয়ে গেছে দমকা হাওয়া। সাথে ছিল গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি। শনিবার (৪ মে) বেলা সোয়া ১১টার দিকে নগরীসহ আশপাশের এলাকায় প্রথমে হালকা বাতাস এবং পড়ে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিসহ দমকা মাঝারি হাওয়া শুরু হয়।

প্রায় ঘন্টাব্যাপী স্থায়ী এ ঝড়ো হাওয়ায় নগরীর কোতোয়ালি থানা আসকারদীঘির পাড় এলাকাসহ বেশ কয়েকটি স্থানে ভেঙ্গে গেছে বৈদ্যুতিক খুটি। গাছ ভেঙ্গে পড়েছে সড়কের উপর। এতে করে নগরীর বেশ কয়েকটি সড়কে যানবাহন চলাচলে বিঘ্ন ঘটে। তাছাড়া চট্টগ্রাম নগরীর বেশ কয়েকটি এলাকায় কিছু কাঁচা ঘরবাড়ির ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ার খবর শোনা গেলেও এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কোথাও কোন হতাহতের ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।

জানা যায়, দুপুর পৌণে ১২টার সময় ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাবে সৃষ্ট ঝড়ো বাতাসে আসকারদীঘির পাড় এলাকায় সড়কে ভেঙ্গে পড়েছে বৈদ্যুতিক খুঁটি। পাশাপাশি ওই এলাকায় অবস্থিত লোকপ্রশাসন অফিসের ভিতর থেকে একটি বড় গাছ ভেঙ্গে সড়কের উপর পড়ে। এতে করে কাজীর দেউড়ি- জামাল খান রোড়ে যানচলাচল বন্ধ রয়েছে। পুরো এলাকায় বন্ধ হয়ে যায় বৈদ্যুতিক সরবরাহ। একই ঘটনা ঘটে নগরীর চন্দনপুরা ফায়ার সার্ভিসের সামনে। তাছাড়া চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এলাকাতেও কয়েকটি গাছ ভেঙ্গে পড়ার তথ্য পাওয়া গেছে।

আগ্রাবাদ ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের উপ-পরিচালক জসিম উদ্দিন বাংলাদেশ মেইলকে জানান, দুপুরে স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পাই আসকারদিঘী পাড় এলাকায় একটি বড় গাছ ভেঙ্গে সড়কের উপর পড়ায় যান চলাচলে ব্যাহত হচ্ছে। এ খবর শুনে দ্রুত ঘটনাস্থলে ফায়ার সার্ভিসের টিম উপস্থিত হয়ে গাছটি কেটে রাস্তা থেকে সরানোর কাজ করছে ফায়ার সার্ভিস কর্মকর্তারা।

তিনি বলেন, নগরীর চন্দনপুরা ফায়ার সার্ভিসের সামনেও একটি গাছ উপড়ে পড়ে সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। পাশাপাশি অন্যান্য কয়েকটি স্থানেও গাছ-পালা ভেঙ্গে পড়ার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে গাছগুলো সড়ক থেকে অপসারণ করে যান চলাচল স্বাভাবিক রাখতে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা কাজ করছে বলে জানান জসিম উদ্দিন।

বিএম/রাজীব…