এসএসসি ফলাফল : পাসের হারে ছেলে জিপিএ ৫ প্রাপ্তিতে এগিয়ে মেয়েরা
চট্টগ্রামে বেড়েছে পাসের হার, কম জিপিএ ৫ : সেরা কলেজিয়েট

চট্টগ্রাম মেইল : মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) পরীক্ষায় চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডে বেড়েছে পাসের হার। গত বছরের তুলনায় ২. ৬১ শতাংশ বেড়ে এবার পাসের হার দাড়ায় ৭৮.১১ শতাংশ। এবার পাসের হারে এগিয়ে রয়েছে ছেলেরা। ছেলেদের গড় পাসের হার ৭৮ দশমিক ৪৩ শতাংশ এবং মেয়েদের পাসের হার ৭৭ দশমিক ৮৩ শতাংশ।

অন্যদিকে গতবারের তুলনায় এ বছর চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডে জিপিএ ৫ প্রাপ্তি শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৭০১ জন কমেছে। জিপিএ ৫ প্রাপ্তিতে এগিয়ে রয়েছে মেয়েরা। এবছর চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ড থেকে মোট জিপিএ ৫ পেয়েছে ৭ হাজার ৩৯৩ জন শিক্ষার্থী। এর মধ্যে মেয়েদের মধ্যে তিন হাজার ৭৪১ জন পরীক্ষার্থী জিপিএ ৫ পেয়েছে। ছেলে জিপিএ৫ প্রাপ্তির সংখ্যা তিন হাজার ৬৫২ জন ছেলে। গতবছর এ শিক্ষাবোর্ড থেকে মোট জিপিএ ৫ প্রাপ্তি শিক্ষার্থীর সংখ্যা ছিলো ৮ হাজার ৯৪ জন।

সোমবার সকাল সাড়ে ১১টায় শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাহবুব হাসান তার সম্মেলন কক্ষে আনুষ্ঠানিকভাবে ফলাফল ঘোষণায় এসব তথ্য নিশ্চিত করেন। সামগ্রিক ফলাফলে সন্তুষ্ট জানিয়ে মো. মাহবুব হাসান তার ফলাফল ঘোষণায় বলেন, চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডের অধীনে এবার ১ লাখ ৪৯ হাজার ৯৯২ জন শিক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়। চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডের অধীনে ১ হাজার ৩০টি স্কুল থেকে ১৯০টি কেন্দ্রে পরীক্ষা দিয়ে পাস করেছে ১ লাখ ১৬ হাজার ৮৫১ জন শিক্ষার্থী।

এর মধ্যে তিন বিভাগের মধ্যে সর্ব্বোচ্চ ৯১.৪৬ শতাংশ পাসের হার ছিল শুধু বিজ্ঞান বিভাগেই। গত বছরের তুলনায় এবছর এ শিক্ষাবোর্ড থেকে পাসের হার বেড়েছে ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগেও। এ বিভাগে গতবছর পাসের হার ছিল ৭৮ দশমিক ৮৬ শতাংশ যা এবছরে ৮০ দশমিক ৮৫ শতাংশে দাড়ায়। তাছাড়া এবছর মানবিক বিভাগে পাসের হার ৬৫ দশমিক ৭৯ শতাংশ। গত বছর ছিল ৬০ দশমিক ১৩ শতাংশ।

জিপিএ ৫ প্রাপ্তি কম হওয়ার পেছনে কারণ হিসেবে মাহবুব হাসান জানান, বাংলা, গণিত, ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং এবং মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের আবশ্যকীয় বিষয় সাধারণ বিজ্ঞানে পরীক্ষার্থীরা খারাপ ফল করেছে। এর সামগ্রিক প্রভাব পড়েছে জিপিএ ৫ প্রাপ্তিতে।

শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাহবুব হাসান বলেন, গতবারের তুলনায় এবার বেড়েছে শতভাগ পাসের হারের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। গতবার ২৭টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শতভাগ পাসের হার ছিল চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডে যা এবার ৩০টি দাঁড়িয়েছে। অন্যদিকে গত বারের মতো এবারও পাসের হানে শূন্য কোন বিদ্যালয় নেই বলে জানিয়েছেন তিনি।

টপ ফাইভে সেরা কলেজিয়েট :

বরাবরের মতোই মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) পরীক্ষায় চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডের টপ ফাইভে শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে চট্টগ্রাম কলেজিয়েট হাই স্কুল। টানা সপ্তম বারের মতো সেরা হয়ে সাফল্যের ধারা অব্যাহত রেখেছে প্রাচীন এ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি। এ নিয়ে গত ১৯ বছরে চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ড থেকে ১৭ বার শীর্ষস্থান দখলের গৌরব অর্জন করেছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি। এ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে এবার ৪৫৭ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে পাস করেছে ৪৫৬ জন। জিপিএ ৫ পেয়েছে ৪১১ জন শিক্ষার্থী।

৩৯২ পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে শতভাগ পাস করেছে সরকারি মুসলিম হাই স্কুলের শিক্ষার্থীরা। এবারের টপ ফাইভে স্কুলটি উঠে এসেছে দ্বিতীয় স্থানে। তৃতীয় স্থানে আছে নাসিরাবাদ সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়। এ বিদ্যালয় থেকে এবার ৪৬১ পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে পাস করেছে ৩২৪ জন। ৩২৫ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ৩২৪ জন পাস করেছে ডা. খাস্তগীর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। এ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি রয়েছে এবারের টপ ফাইভের চতুর্থ স্থানে। পঞ্চম স্থানে রয়েছে বাংলাদেশ মহিলা সমিতি (বাওয়া) উচ্চ বিদ্যালয়।

সোমবার দুপুরে চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাহবুব হাসান ছাড়াও বোর্ডের কলেজ পরিদর্শক প্রফেসর মো. জাহেদুল হক, বিদ্যালয় পরিদর্শক প্রফেসর মো. আবু তাহের, বোর্ড সচিব প্রফেসর মো. শওকত আলম, উপ-পরিচালক (হিসাব ও নিরীক্ষা) নারায়ণ চন্দ্র নাথ, সিনিয়র সিস্টেম এনালিস্ট কিবরিয়া মাসুদ খান উপস্থিত ছিলেন।

বিএম/রাজীব সেন…