ইউরোপা লীগের ফাইনালে আর্সেনাল

ইয়েফা ইউরোপা লীগের সেমিফাইনালে ভ্যালেন্সিয়াকে ৪-২ (দুই লীগ মিলিয়ে ৭-৩) গোলে হারিয়ে ফাইনালে উঠে গেছে ইংলিসব জায়ান্ট আর্সেনাল। হ্যাট্রিক করে দলের হয়ে বড় অবদান রেখেছেন পিয়েরী এমেরিক অবামেয়াং।

প্রথম লেগের হতাশা কাটিয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর লক্ষ্যে মাঠে নামা ভালেন্সিয়ার শুরুটা হয়েছিল দারুণ। দুর্দান্ত এক পাল্টা আক্রমণে রদ্রিগোর দূরের পোস্টে বাড়ানো বল ফাঁকায় পেয়ে স্লাইড করে জালে ঠেলে দেন ফরাসি ফরোয়ার্ড কেভিন গামেইরো।

ম্যাচে তাদের এগিয়ে যাওয়ার আনন্দ অবশ্য স্থায়ী হয়নি। ছয় মিনিট পরেই অবামেয়াংয়ের দারুণ গোলে সমতায় ফেরে আর্সেনাল। সতীর্থের হেডের পর বল বুক দিয়ে ডি-বক্সে বাড়িয়ে জোরালো শটে পোস্ট ঘেঁষে জালে জড়ান তিনি।

দ্বিতীয়ার্ধের পঞ্চম মিনিটে দুই লেগ মিলে ব্যবধান বাড়িয়ে ফাইনালের টিকেট প্রায় নিশ্চিত করে ফেলে আর্সেনাল। বাঁ দিক থেকে লুকাস তররেইরার পাস ডি-বক্সে পেয়ে একজনকে কাটিয়ে নিচু শটে বল জালে পাঠান আলেকজান্ডার লাকাজেত।

৫৮তম মিনিটে গামেইরোর দ্বিতীয় গোলে ভালেন্সিয়ার ফিকে হয়ে যাওয়া নতুন করে জাগে। তবে ৬৯তম মিনিটে অবামেয়াং আবারও লক্ষ্যভেদ করলে লড়াই থেকে একরকম ছিটকে পড়ে স্বাগতিকরা। ম্যাচে ৩-২ ও দুই লেগ মিলে ৬-৩ ব্যবধানে এগিয়ে যায় আর্সেনাল।

আর ৮৮তম মিনিটে হেনরিখ মিখিতারিয়ানের পাস পেয়ে কোনাকুনি শটে হ্যাটট্রিক পূরণ করেন অবামেয়াং। মৌসুমে গ্যাবনের এই ফরোয়ার্ডের মোট গোল হলো ২৯টি।

বাকি সময়ে আর কোন গোল না হলে সহজ হয় নিয়েই ফাইনালে চলে যায় আর্সেনাল।

বিএম/রনী/রাজীব