বিত্তবানরা দায়িত্ব নিলেই আলোকিত হবে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জীবন

    বিত্তবানরা দায়িত্ব নিলেই আলোকিত হবে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জীবন

    ‘পবিত্র এই রমজানে হাসি ফুটুক সবার প্রাণে’ এই শ্লোগানে সামাজিক সংগঠন “প্রচেষ্টা ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ” পরিচালিত সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের বিদ্যায়তন “প্রচেষ্টা ইশকুল” এর ছেলেমেয়েদের নিয়ে প্রচেষ্টা ঈদ কার্নিভাল নামে ভিন্নধর্মী আয়োজন করেছে সংগঠনটি।

    প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান মঈন উদ্দীন আকবর এর সভাপতিত্বে সংগঠনের সদস্য জাহিদুল ইসলাম রিয়াদ এর সঞ্চালনায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বাংলাদেশ বেতার চট্টগ্রাম কেন্দ্রের সিনিয়র উপস্থাপিকা নাসরিন ইসলাম,জুনিয়র চেম্বার অব কমার্স এর ভাইস প্রেসিডেন্ট ও রেড র্কাপেট ইভেন্ট এর সিইও শান শাহেদ, স্বনামধন্য উপস্থাপিকা স্মিতা চৌধুরী, সম্মিলিত সামাজিক সংগঠন পরিষদের সভাপতি ওসমান ফারুকী হিমাদ্রী, ক্লাউড ওয়ান এর সিইও কামরুল হাসান ফরহাদ, বিশিষ্ট সংগীত শিল্পী ও রানওয়ে ব্যান্ড এর নুরুল কবির মাসুম, সংগীত শিল্পী জুনায়েদ ইভান, লামোর ইভেন্টের সত্ত¡াধিকারী সাদ শাহরিয়ার, হাক্কানী গ্রুপের সি.এফ.ও মঈন চৌধুরী, প্রিন্ট টাচ এর সিইও সাইফুল ইসলাম, স্বেচ্ছায় রক্তদাতা ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা আশিশ মুহরী, জজ র্কোট এর এডভোকেট মো: রাশেদ পারভেজ, ডি ইঞ্জিনিয়ার্স ক্লাব এর প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি সৌমেন কানুনগো, ডিজি সফট এর সিইও ইঞ্জিনিয়ার শাহাদাত হোসেন, সার্ক মানবধিকার ফাউন্ডেশন চট্টগ্রাম মহানগরের সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার শাহীন চৌধুরী, পপুলার জনকল্যাণ ফাউন্ডেশন এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি এম এ জলিল, আইকন কমিউনিকেশন এর কো-অর্ডিনেটর আলমগীর মোরশেদ।

    অনুষ্ঠানে বিশেষ আকর্ষণ হিসেবে ছিলেন মিস্টার এন্ড মিস হাবিব তাজকিরাজ খ্যাত নাবিল আহমেদ হীরু ও ইশায়া তাহসিন।

    আমন্ত্রিত অতিথিরা প্রচেষ্টার এমন মহতি উদ্যোগের ভূয়সী প্রশংসা করে আগামীতেও প্রচেষ্টার সকল কাজে পাশে থাকার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

    সভাপতির বক্তব্যে মঈন উদ্দীন আকবর বলেন, সমাজের সুবিধাবঞ্চিত এই ছেলেমেয়েগুলো অভাবের তাড়নাই স্বপ্ন দেখতে ভুলে গেছে, বড় হয়ে মা বাবার দায়িত্ব নেয়া তথা দেশের সেবা করার স্বপ্ন নিয়ে বড় করার জন্য প্রতিষ্ঠিত হয়েছে “প্রচেষ্টা ইশকুল”। তিনি প্রচেষ্টা ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ এর “ডোনেট ফর চাইল্ড” প্রজেক্টের এর মাধ্যমে সমাজের বিত্তবানদের কাছে এক একজন শিশুর দায়িত্ব নেয়ার আহ্বান জানান।

    অনুষ্ঠানে স্কুলের শতাধিক সুবিধাবঞ্চিত ছেলেমেয়ের হাতে ঈদের নতুন জামা তুলে দেয়া হয়, আমন্ত্রিত সকল অতিথি ও সুবিধাবঞ্চিত ছেলেমেয়েদেও নিয়ে একসাথে ইফতার করা হয়, স্কুলের বাচ্চাদের পরিবেশনায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও কেক কেটে প্রচেষ্টা ঈদ ফেস্টিভ্যাল এর সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়। ইভেন্ট পার্টনার হিসেবে ছিল লামোর ইভেন্ট প্লানার।

    অনুষ্ঠানে ২০০১ এস.এস.সি এবং ২০০৩ এইচ.এস.সি গ্রুপের সকল মেম্বারদের ধন্যবাদ জানানো হয় কারণ এই মহৎ উদ্যোগের শুরু থেকে গ্রুপের অনেকেই সহায়তা প্রদান করেছেন।

    এ সময় স্কুলটির পরিচালনার দায়িত্বে থাকা শান্ত, রিহান, ইয়াছিন, সাকলাইন ও সদস্যদের মধ্যে দেলোয়ার হোসেন, আলী আশরাফ আজগরী, আফিয়া, জেবা, চামেলি, মাওয়া, বৃষ্টি, সজিব, উদয়নসহ অন্যান্য সকল সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। প্রেস বিজ্ঞপ্তি