খালেদাকে মুক্ত করতে আন্দোলন জোরদার করা হচ্ছে

কারাগারে থাকা দলীয় চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াসহ দলের কারাবন্দি নেতাকর্মীদের মুক্ত করতে আন্দোলন জোরদার করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি জানিয়েছেন, নতুন করে আন্দোলন বেগবান করার ব্যাপারে তারা শপথ নিয়েছেন।

শুক্রবার সদ্য কারামুক্ত বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী সোহেলকে নিয়ে দলের প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দিয়ে ফখরুল বলেন, ‘আজকে এখানে শপথ নিয়েছি, দেশনেত্রীর মুক্তির জন্য সব রকমের আন্দোলন বেগবান করব এবং দেশনেত্রীসহ আটক নেতা-কর্মীদের মুক্ত করার জন্য, মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করার জন্যে আমরা অবশ্যই আন্দোলন গড়ে তুলতে সক্ষম হব।’

সরকারকে সতর্ক করে দিয়ে ফখরুল বলেন, ‘এখনো সময় আছে, আপনারা রাজবন্দিদের মুক্তি দিন, দেশনেত্রীকে মুক্তি দিন, মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করুন।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘সম্পূর্ণ মিথ্যা মামলায় বেআইনিভাবে বিএনপি চেয়ারপারসনকে ১৮ মাস ধরে আটক রাখা হয়েছে। এখন তিনি অত্যন্ত অসুস্থ। এ অসুস্থ অবস্থায় তিনি সঠিক চিকিৎসা পর্যন্ত পাচ্ছেন না।’

বতর্মান সংসদকে অবৈধ উল্লেখ করে ফখরুল বলেন, ‘সংসদ ভেঙে দিয়ে অবিলম্বে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নতুন নির্বাচনের ব্যবস্থা করুন। অন্যথায় দেশের জনগণ কোনোদিনও আপনাদের ক্ষমা করবে না।’

এ সময় অন্যদের মধ্যে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরফত আলী সপু, মহানগর দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশার, মহানগর উত্তরের সাধারণ সম্পাদক আহসানুল্লাহ হাসান, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু, সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদের ভুঁইয়া জুয়েলসহ দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

বিএম/এমআর