নৌকাডুবে ভূমধ্যসাগরে নিহত ১৫০

আবারো সলিলে বিলীন হলো ইউরোপে পাড়ি জমানোর বিলাসী স্বপ্ন। ফের সাগর পাড়ি দিয়ে ইউরোপ যাওয়ার সময় লিবিয়া উপকূলে জাহাজ ডুবে অন্তত ১৫০ জন মানুষের প্রাণহানির আশঙ্কা করছে জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা ইউএনএইচসিআর।

শুক্রবার (২৬ জুলাই) আন্তর্জাতিক মাধ্যমের সূত্রের বরাতে জানা যায়, বৃহস্পতিবার (২৫ জুলাই, মাঝরাত) সংস্থাটির মুখপাত্র চার্লি ইয়াক্সলি বলেন, অভিবাসন প্রত্যাশী প্রায় ৩০০ মানুষ নিয়ে জাহাজটি ইউরোপের উদ্দেশে ছেড়ে গিয়েছিল। কিন্তু লিবিয়া উপকূলে পৌঁছুতেই উত্তাল সাগরের বুকে উলটে যায় নৌকাটি। আর এতেই এই প্রাণহানির ঘটনা ঘটে। নৌকায় থাকা অপর ১৫০ জনকে উদ্ধার করে লিবিয়ায় ফিরিয়ে আনা হচ্ছে।

লিবিয়া ইউরোপে অভিবাসনের স্বপ্নধারীদের একটি কেন্দ্র, যেখান থেকে নৌকায় করে সাগর পাড়ি দিয়ে ইউরোপ পৌঁছানোর চেষ্টা করে তারা। তবে, এসব নৌকার অধিকাংশই থাকে সাগরের জন্য অযোগ্য। লিবিয়ার রাজধানী ত্রিপোলি থেকে ১২০ কিলোমিটার পূর্বের আল খুম শহর থেকে জাহাজটি ছেড়ে যায়, জীবিতদের উদ্ধার করে ফের লিবিয়ায় ফেরানো হচ্ছে।

ইউএনএইচসিআর এবং জাতিসংঘের অন্যান্য সংস্থাগুলো জীবিতদের যুদ্ধবিধ্বস্ত লিবিয়ায় ফিরিয়ে না নেয়ার জন্য বারবার আহ্বান জানিয়ে আসছে। সেখানে ফিরে যাওয়া অভিবাসী প্রত্যাশীদের অমানবিক পরিস্থিতিতে নিয়ম মাফিক কারাদণ্ড দেয়া হয়ে থাকে।

উদ্ধার করা জীবিতদের দেয়া প্রাথমিক তথ্য অনুযায়ী প্রায় ৩০০ জন মানুষ ভ্রমণ করছিল জাহাজটিতে, যদিও জাহাজের সংখ্যা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

ইউএনএইচসিআর মুখপাত্র চার্লি ইয়াক্সলি বলেন, স্থানীয় জেলেরা জীবিতদের পানি থেকে উদ্ধার করে এবং তারপর লিবিয়ার কোস্ট গার্ডের মাধ্যমে তাদের উপকূলীয় অঞ্চলের ফিরিয়ে আনা হয়। রয়টার্স

তবে এদের মধ্যে কোন কোন দেশের নাগরিক রয়েছেন তা নিশ্চিতভাবে জানা যায়নি।

বিএম/এমআর