ইলিশে ভরপুর মৎস্য আড়ৎ : স্বস্থির হাসি জেলেদের

রাজীব সেন প্রিন্স :

সাগরে ৬৫ দিন সব ধরনের মৎস্য আহরণে নিষেধাজ্ঞা উঠে যাওয়ার পর বঙ্গোপসাগরে এখন জেলেদের জালে ধরা পড়তে শুরু করেছে ঝাঁকে ঝাঁকে রূপালী ইলিশ। ফলে জেলে-ফিশিং ট্রলার মালিক ও মৎস্য আড়তদারদের মুখে এখন স্বস্থির হাসি।

ছবিটি আজ রবিবার চট্টগ্রামের ফিশারিঘাট থেকে তোলা। ছবি তুলেছেন কাঞ্চন চক্রবর্ত্তী।

গত কয়েকদিন ধরে জেলেদের জালে ধরা পড়ছে ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ। আর এগুলো আকারেও বড়। তাই রূপালি ইলিশের হাসি জেলেদের চোখেমুখে। আশানুরূপ মাছ পাওয়া যাওয়ায় ট্রলার মালিকদের মুখেও হাসি ফুটেছে দীর্ঘদিন পর। অপরদিকে বাজারে পর্যাপ্ত ইলিশের সরবরাহ থাকায় ইলিশ মাছের দামও কমেছে। ইলিশের স্বাদ গ্রহণের সাহস করছেন সাধারণ মানুষ।

ছবিটি আজ রবিবার চট্টগ্রামের ফিশারিঘাট থেকে তোলা। ছবি তুলেছেন কাঞ্চন চক্রবর্ত্তী।

জানা যায়, জেলেদের হাত থেকে এসব ইলিশ আসছে চট্টগ্রামের ফিশারিঘাট আড়তে, সেখান থেকে পাইকার এবং বেপারিদের হাত ঘুরে এসব মাছ চলে যাচ্ছে ঢাকা, চাঁদপুর, বরিশাল, যশোরসহ দেশের বড় বড় মৎস্য আড়তে। সাগরে পর্যাপ্ত ইলিশ ধরা পড়ায় পাইকারি বাজারে ইলিশের দাম কমেছে আকার ভেদে মন প্রতি ২০ হাজার টাকা পর্যন্ত। জানালেন চট্টগ্রাম ফিশারিঘাটের জেলেরা।

সাগর দাশ নামে এক জেলে জানায়, গত ৬৫ দিনের অবরোধ চলাকালে নদী থেকে ধরা ইলিশের মণ ৪০ থেকে ৪৫ হাজার টাকায় বিক্রি হয়েছে। এখন বাজারে সামুদ্রিক ইলিশ আসায় ২০ থেকে ২৫ হাজার টাকায় প্রতি মণ বিক্রি হচ্ছে ইলিশ।

ছবিটি আজ রবিবার চট্টগ্রামের ফিশারিঘাট থেকে তোলা। ছবি তুলেছেন কাঞ্চন চক্রবর্ত্তী।

মৎস্যজীবীরা বলছেন, সমুদ্রে মাছ ধরা পড়া অব্যাহত থাকলে অবরোধে জেলেদের ঋণের বোঝা কমার সাথে সাথে দেশের মানুষ কম দামে ইলিশ পাবেন। আর সমুদ্রে মাছ বাড়াটা গত ৬৫ দিনের অবরোধেরই সুফল বলে দাবি অবতরণ কেন্দ্র কর্তৃপক্ষের।

দেশের অন্যতম বৃহৎ মৎস্যবাজার চট্টগ্রাম নগরীর ফিশারিঘাটের কয়েকটি আড়ত ঘুরে দেখা যায়, প্রায় সবগুলো আড়তেই বসেছে ইলিশের মেলা। আড়তে সাজিয়ে তা বাজারজাত করা হচ্ছে বিভিন্ন প্রান্তে। জেলেদের ধরা মাছ আড়তে তুলে হাঁক-ডাক দেওয়া হচ্ছে। নির্ধারিত দামে সেসব মাছ কিনে নিচ্ছেন ঢাকাসহ বিভিন্ন স্থান থেকে আসা পাইকারি ক্রেতারা।

ছবিটি আজ রবিবার চট্টগ্রামের ফিশারিঘাট থেকে তোলা। ছবি তুলেছেন কাঞ্চন চক্রবর্ত্তী।

চট্টগ্রাম ফিশারি ঘাটের মাছের আড়তদার উত্তম দাশ ও আমিনুল ইসলাম জানায়, বাজারে এখন ইলিশের সরবরাহ প্রচুর। দামও অনেক কমেছে। আগামী কয়েক দিনের মধ্যে এই দাম আরো কমতে পারে বলে জানান আড়তদাররা।

এদিকে চট্টগ্রাম মহানগরীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেছে, খুচরা বাজারেও ইলিশের মূল্য কমেছে উল্লেখযোগ্য হারে। চট্টগ্রামের রিয়াজউদ্দিন বাজার, কাজির দেউড়ি, চকবাজার, বহদ্দারহাট কাঁচাবাজার, কর্ণফুলী মার্কেট, ষোলশহর কাঁচাবাজারসহ নগরীর খুচরা বাজারগুলোতে দেখা গেছে ইলিশের বাজারেই ক্রেতাদের ভিড়। দীর্ঘদিন পর স্বাধের এ মাছ ক্রয় ক্শতার মধ্যে কিতনে পেরে খুশি সবাই।

বিএম/রাজীব সেন…