ড্রোনের মাধ্যমে শনাক্ত আসামীর অবস্থান : বন্দুকযুদ্ধে নিহত ডাকাত জাকের

ড্রোনের মাধ্যমে শনাক্ত আসামীর অবস্থান

চট্টগ্রাম মেইল : চট্টগ্রাম জেলার বাঁশখালীতে র‌্যাবের সাথে কথিত বন্ধুকযুদ্ধে ২৪ মামলার এক আসামীর মৃত্যু হয়েছে।

রবিবার বিকাল ৫টার সময় উপজেলার চাম্বল ইউনিয়নের পাহাড়ি এলাকায় ডাকাতদলের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে তার মৃত্যু হয়। ঘটনাস্থল থেকে ১১ টি আগ্নেয়াস্ত্র ও বিপুল পরিমাণ গুলি উদ্ধার করেছে র‌্যাবের অভিযানিক টিম।

নিহত আসামীর নাম মো. জাকের (৪০)। নিহত জাকের উপজেলার পূর্ব চাম্বলের ছড়ারকুল গ্রামের বাসিন্দা বাদশা মিয়া প্রকাশ বাইশ্যার ছেলে বলে জানিয়েছে র‌্যাব।

র‌্যাব-৭ এর চান্দগাঁও ক্যাম্পের কমান্ডার মেজর মেহেদী হাসান এর সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, নিহত জাকেরের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসী, ডাকাতি ও জলদস্যুতাসহ মোট ২৪টি মামলা রয়েছে। এরমধ্যে ১টি হত্যা, ৫টি ডাকাতি, ৬টি অস্ত্র মামলা ও এক ডজন জলদস্যুতার মামলা রয়েছে।

তিনি জানান, বাঁশখালীর চাম্বলসহ উপজেলার বিভিন্ন পাহাড়ি এলাকায় সন্ত্রাসী আস্তানা গড়ে তুলেছিলো জাকের। রবিবার বিকেলে চাম্বলের পাহাড়ি এলাকায় ড্রোন ব্যবহার করে জাকেরের অবস্থান শনাক্ত করে তাকে গ্রেফতারের লক্ষ্যে অভিযানে যায় র‌্যাবের একটি অভিযানিক দল।

র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে জাকেরের সঙ্গীয় ফোর্স র‌্যাব সদস্যদের লক্ষ্য করে গুলি চালায়। এসময় র‌্যাবও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছোঁড়ে। গোলাগুলির এক পর্যায়ে ডাকাতরা পালিয়ে গেলে ঘটনাস্থলে জাকেরের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করা হয় এবং ঘটনাস্থল থেকে বিভিন্ন ধরনের ১১টি আগ্নেয়াস্ত্র ও বিপুল পরিমাণ গুলি উদ্ধার করে র‌্যাব।

বিএম/রাজীব..

আরোঃ স্বাধীনতার পর চট্টগ্রামে প্রথমবার থানা কমিটি করতে যাচ্ছে নগর ছাত্রলীগ