রেলের অগ্রিম টিকেটের ভিড় নেই চট্টগ্রাম স্টেশনে
কাউন্টারে পর্যাপ্ত টিকেট,সবাই পাবেন,-স্টেশন ম্যানেজার

চট্টগ্রাম মেইল : পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে চট্টগ্রামে শুরু হয়েছে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি। আজ সোমবার দেয়া হচ্ছে ৭ আগস্টের টিকিট। তবে প্রথম দিনে টিকিট প্রত্যাশীদের তেমন ভিড় লক্ষ্য করা যায়নি।

সোমবার সকাল ৯ টা থেকে টিকিট বিক্রি শুরু হয়। চলবে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত। পাশাপাশি অ্যাপসের মাধ্যমেও টিকিট বিক্রি করা হবে। ১ম দিনে অ্যাপসহ মোট ১২ হাজার টিকিট দেওয়া হবে বলে জানায় রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ।

নির্ধারিত তারিখের জন্য ১২ হাজার টিকিটের মধ্যে ৭ হাজার ১৮টি আন্তঃনগর ট্রেনের এবং বাকি ৪ হাজার ৯শ ৭৮টি অন্যান্য ট্রেনের টিকিট। আন্তঃনগরের ৭০১৮টি টিকিটের মধ্যে ৩৫৮৮ টি টিকিট কাউন্টারে বিক্রির জন্য রাখা হয়েছে। ভীড় কম থাকায় কাঙ্খিত টিকেট হাতে পেয়ে খুশি টিকেট প্রত্যাশীরা।

পরিবার-পরিজনকে ঈদের আগেই গ্রামের বাড়িতে পাঠিয়ে দিতে অনেকেই আজ লাইনে দাঁড়িয়ে প্রত্যাশিত টিকেট কিনতে এসেছেন চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশনে। তবে বাসা থেকে বের হবার আগে যে ধারণা নিয়ে টিকেট ক্রয় করতে আসেন তার পুরো ধারণাই পাল্টে খুব কম সময়ের মধ্যেই প্রত্যাশিত টিকেট হাতে পেয়ে বাসায় ফিরতে পারবে, হাসিমুখে এমন মন্তব্য করেন নগরীর অক্সিজেন থেকে আসা আনিসুল ইসলাম।

ঠিক একইভাবে মন্তব্য করেছেন কান্তা রহমান। তিনি ঢাকা যাওয়ার উদ্দ্যেশে প্রথম দিনের অগ্রিম টিকেট কিনতে এসেছেন নগরীর অলংকার এলাকা থেকে। তিনি বললেন সকাল ৭টার সময় এসেছি, সামান্য লাইন ছিলো। বেশিক্ষন অপেক্ষা করতে হয়নি। সকাল ১১টার মধ্যেই কোন প্রকার বিশৃঙ্খলা ছাড়াই আমি আমার পরিবারের ৪ সদস্যের জন্য ৪টি টিকিট সংগ্রহ করেছি।

রেলওয়ে সূত্র জানায়, আগামী ১২ আগস্ট ঈদুল আজহার সম্ভাব্য দিন ধরে নিয়ে আজ ২৯ জুলাই থেকে অগ্রিম টিকেট বিক্রির দিন ধার্য করা হয়েছে। আজ ২৯ জুলাই ৭ আগস্টের অগ্রিম টিকেট বিক্রি করা হচ্ছে।

এভাবে পর্যাক্রমে আগামী ৮ আগস্টের টিকেট দেয়া হবে ৩০ জুলাই। ৩১ জুলাই দেয় হবে ৯ আগস্টের অগ্রিম টিকেট। ১ আগস্ট ১০ আগস্টের এবং ২ আগস্ট পাওয়া যাবে ১১ আগস্টের টিকেট। অপরদিকে ফিরতি পথের জন্য আগামী ৫ আগস্ট ১৪ আগস্টের, ৬ আগস্ট ১৫ আগস্টের, ৭ আগস্ট ১৬ আগস্টের, ৮ আগস্ট ১৭ আগস্টের এবং ৯ আগস্ট ১৮ আগস্টের টিকেট পাওয়া যাবে।

টিকেট প্রত্যাশীদের নিরাপত্তার বিষয়ে বলতে গিয়ে চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশনের ম্যানেজার আবুল কালাম আজাদ বলেন, টিকিট কালোবাজিরি ঠেকাতে ও যাত্রীদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে ৫৭ টি সিসিটিভি ক্যামেরার মাধ্যমে মনিটরিং করা সহ বিভিন্ন আইনশৃঙ্খলা বাাহিনীর বিপুল সংখ্যক সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।

টিকেট প্রত্যাশীদের মাঝে যেন উশৃঙ্খলতা বা বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির সৃষ্টি না হয় সেজন্য রেলওয়ে কর্মকর্তা পর্যায়ের বেশ কয়েকটি টিম কাউন্টারের ভেতরে এবং বাইরে থেকে সার্বিক অবস্থা তদারকি করছে।

তিনি বলেন, সবাই টিকেট পাবেন, কাউন্টারে এখনও প্রচুর টিকিট রয়েছে। তবে জাতীয় পরিচয়পত্র ছাড়া কাউকে টিকিট দেয়া হবে না। বরাবরের মতো এবারও একজন যাত্রী শুধু চারটি টিকিট সংগ্রহ করতে পারবেন বললেন স্টেশনের ম্যানেজার আবুল কালাম আজাদ।

বিএম/রাজীব সেন.