ডেঙ্গুজ্বরে পুলিশসহ আরো দুজনের মৃত্যু

বিএম ডেস্ক : দেশব্যাপী ডেঙ্গু ছড়িয়ে পড়ার সঙ্গে সঙ্গে মশাবাহিত এ রোগে মৃতের সংখ্যা বাড়ছে। দেশের ৬০ জেলায় ছড়িয়ে পড়েছে এ রোগটি। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ১ হাজার ৩৩৫ ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হয়েছেন। অর্থাৎ প্রতি ঘণ্টায় ৫৫ জনের বেশি।

গতকাল মঙ্গলবার নতুন করে আরও ৫ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এর মধ্যে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের উপসচিবের স্ত্রী রয়েছেন। এর আগে মারা গেছে চিকিৎসক, সাংবাদিক ও পুলিশ। ভয়াবহ রূপ নেওয়া ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে রাজধানী ঢাকা ও বরিশালে আরো দুজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

এর মধ্যে মঙ্গলবার দিনগত রাত ১টার সময় রাজধানীর মোহাম্মদপুর সিটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে পুলিশের বিশেষ শাখার (এসবি) উপপরিদর্শক (এসআই) কোহিনুর বেগম (৩৩) এবং মঙ্গলবার রাত পৌনে ১০টার দিকে বরিশালের গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মারা গেছেন আলেয়া বেগম (৫৩) নামে এক নারী।

মোহাম্মদপুর সিটি হাসপাতালে দায়িত্বরত কর্মকর্তা বলেন, ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত পুলিশের এসআই কোহিনুরকে রাজারবাগ পুলিশ লাইন হাসপাতাল থেকে গত সোমবার রাত ৯টায় তাকে গুরুতর অবস্থায় এ হাসপাতালে আনা হয়। এরপর থেকে তাকে আইসিইউ বা নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে রাখা হয়। মঙ্গলবার দিনগত রাত ১টার দিকে তিনি মারা যান। এসআই কোহিনুর আক্তারের গ্রামের বাড়ি টাঙ্গাইলের ভূয়াপুরে। তার দেড় বছর বয়সী এক শিশু সন্তান রয়েছে বলে জানা গেছে।

বরিশাল জেলার গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার মাহাবুব আলম বলেন স্বজনদের বরাতে জানিয়েছেন, ঢাকা থেকে কয়েক দিন আগে গৌরনদীতে গ্রামের বাড়ি এসেই জ্বরে পড়েন উপজেলা সদরের আশোকাঠী এলাকার আবদুল মান্নান ফকিরের স্ত্রী আলেয়া বেগম। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে রক্ত পরীক্ষায় তার ডেঙ্গু ধরা পড়ে। এর পর স্বজনরা তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসার পথেই তার মৃত্যু হয়।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের তথ্যানুযায়ী, এ বছর দেশে ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৫ হাজার ৩৬৯ জন, যাদের ৮ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশনস সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

বিএম/আরএসপি..