সীতাকুণ্ডে মহাসড়কের পাশে শুকনো গাছ, আতঙ্কে পথচারীরা

কামরুল ইসলাম দুলু,সীতাকুণ্ড প্রতিনিধি : সীতাকুণ্ড উপজেলার বাড়বকুণ্ড এলাকায় ব্যস্ততম ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দুই পাশে দাঁড়িয়ে আছে অসংখ্য মৃত গাছ। যার অংশ প্রতিনিয়ত ভেঙে পড়ছে সড়কে।

কখনো আবার পথচারীদের উপর। আর এসব মরা গাছের নীচ দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে প্রতিদিনই মহাসড়ক পথে চলাচল করছে পথচারী ও হাজার হাজার যানবাহন।

সড়কের পাশে দাঁড়িয়ে থাকা মরা গাছগুলো এখন মরণ ফাঁদে পরিনত হয়েছে। সামান্য ঝড় বাতাসে এই গাছগুলো ভেঙ্গে পড়ে ঘটতে পারে প্রাণহানীর মত বড় ঘটনা। প্রায় সময় শুকনো ডাল ভেঙে দুর্ঘটনায় কবলিত হচ্ছে অনেকেই। বড় ধরনের দুর্ঘটনার পূর্বেই গাছ গুলোকে কেটে অপসারণের উদ্যেগ নেওয়া প্রয়োজন বলে মনে করেন সড়কের পথচারীরা।

সরেজমিনে দেখা গেছে, বাড়বকুণ্ড এলাকার মহাসড়কের পাশে পিএইচপি গ্লাস ফ্যাক্টরীর সামনে দীর্ঘদিন ধরে শুকিয়ে থাকা একটি গাছ বিপদজনকভাবে দাঁড়িয়ে আছে। কর্তৃপক্ষ গাছটি অপসারণের কোনো উদ্যোগ গ্রহণ না করায় পথচারী ও মহাসড়কে যানবাহন চালকদের আতঙ্কে চলাচল করতে হচ্ছে।

কোন কোন জায়গায় মরা গাছের শুকনো ডাল ভেঙে ঝুলে থাকতে দেখা গেছে। এগুলো চলতি মৌসুমের জন্য খুবই বিপদজনক। মচকে থাকা শুকনো ডালগুলো যে কোনো মুহূর্তে নিচে পড়ে ঘটতে পারে বড় দুর্ঘটনা।

এই ঝুকিপূর্ন গাছগুলি অপসারণের জন্য কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন স্থানীয় এলাকাবাসী।

বিএম/রাজীব..