শীতলপুরে জুয়া ও মাদকের জমজমাট আসর

সীতাকুণ্ড প্রতিনিধি : সীতাকুণ্ড উপজেলার সোনাইছড়ি ইউনিয়নের শীতলপুরস্থ গামারীতলা এলাকায় একটি সেমিপাকা ভাড়া ঘরে দীর্ঘ দিন ধরে চলে আসছে জুয়ার আসর।

ওই জুয়ার আসরে প্রতি রাতে স্থানীয় যুবসমাজ ও মিল কারখানার শ্রমিকেরা সর্বশান্ত হচ্ছে।

এলাকায় খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গামারীতলা এলাকার নাজিয়া রোলিং মিলের পশ্চিম পার্শ্বে খালের পাশে জনৈক তাজু কন্ট্রাক্টারের ভাড়া ঘরে উক্ত জুয়ার আসরটি চলছে। জুয়ার পাশাপাশি উক্ত ঘরে রাত বাড়ার সাথে সাথে চলে বিভিন্ন প্রকারের মাদকের আসর।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে ওই এলাকার বেশ কয়েকজন ব্যক্তি জানান, মোহাম্মদ শাহাজান নামের এক ব্যক্তি উক্ত জুয়ার আসরটি পরিচালনা করছে। তিনি দীর্ঘ দিন ধরে তিনতাস ও প্লাসসহ বিভিন্ন ধরনের জুয়ার আসর বসিয়ে স্থানীয় যুবসমাজ ও মিলকারখানার শ্রমিকদের কাছ থেকে হাতিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা।

দূর-দূরান্তের জুয়াড়িরা প্রাইভেটকার ও মোটর সাইকেলে করে এসে ওই আসরের জুয়া খেলায় অংশ নেয়। পেশাদার জুয়াড়িদের খপ্পরে পড়ে ওই সব জুয়ার আসরে ভিড়ছে এলাকার স্কুল-কলেজগামী ছাত্র ও উঠতি বয়সের যুবকেরাও। সন্ধ্যার পর থেকে এখানে কার, মোটর সাইকেলর সংখ্যা বাড়তে থাকে।

গামারীতলা এলাকার নাজিয়া রোলিং মিলের পাশে রয়েছে একটি ট্রাক টার্মিনাল। উক্ত ট্রাক টার্মিনালের ড্রাইভার- হেলপারদের জন্য বানানো বোডিংটিই এখন জুয়ার আসর। বোডিং এর আশপাশে লাগানো হয়েছে বেশ কয়েকটি সিসি ক্যামেরা। এখানে অপরিচিত কোন লোক ঘুরাফেরা করলে তা ঘরের ভিতর থেকে মনিটরিং করা হয়।

সরজমিনে গিয়ে দেখা গেছে ঘরের সামনে থেকে তালা দেওয়া, ভিতরে চলে জুয়ার আসর।

এলাকাবাসীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত বছর উক্ত জুয়ার আসরে হানা দিয়ে পুলিশ ২৭ জনকে আটক করে। বর্তমানে মহাসড়কের পাশে জুয়ার আসর চললেও প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোন ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছেন এলাকার স্থানীয় বেশ কয়েকজন ব্যক্তি।

বিএম/কামরুল/রাজীব