নির্বাচিত শাসকের বিরুদ্ধে শা‌ন্তিপূর্ণ বিক্ষোভ, শরিয়তে বৈধতা রয়েছে: মিসরের গ্রান্ড মুফতি

    আন্তর্জাতিক ডেস্ক:শুধু অবৈধ নয় বৈধ সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করা ইসলামি শরিয়ত মোতাবেক বৈধ বলে ঘোষণা দিয়েছেন মিসরের প্রাচীন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান আল আজহার বিশ্ববিদ্যায়ের প্রধান ও দেশটির গ্রান্ড মুফতি ডা. আহমাদ তাইয়্যেব।

    শাইখুল আজহার এমন সময় এই ফতোয়া দিলেন যখন দেশটির জনগণ স্বৈরাশাসক আবদেল ফাত্তাহ আল-সিসির পতনের জন্য রাজপথে নেমেছেন। ফলে তাইয়্যেবের একটি বক্তব্য ব্যাপক আলোচনা সৃষ্টি করেছে।

    চাপা ক্ষোভ নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরেই মিশর শান্তই ছিল। কিন্তু হঠাৎ শুক্রবার থেকে শান্ত মিশর আবারও জেগেছে। স্বৈরশাসক আবদেল ফাত্তাহ আল সিসির পতনের দাবিতে আবারও রাজপথে নেমেছে লাখো মিশরীয়। সিসির পতনের শ্লোগান উত্তাল সেই তাহরির স্কয়ার।

    আল আজহার বিশ্ববিদ্যায়ের প্রধান বলেন, নির্বাচিত শাসকের বিরুদ্ধে দেশের সাধারণ জনতা শা‌ন্তিপূর্ণ বিক্ষোভ কর্মসূ‌চি পালন করতে পারবে এবং শরিয়তের দৃষ্টিতে এর বৈধতা রয়েছে।

    মিসরের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম আল-আহরামে এ সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে।

    ড. আহমাদ তাইয়্যিব বলেন, শাসকের বিরুদ্ধে শা‌ন্তিপূর্ণ বিক্ষোভ কর্মসূ‌চি শরিয়তে বৈধ। এর সঙ্গে ঈমান বা কুফরের কোনো সম্পর্ক নেই। শাসকদের বিরুদ্ধে শান্তিপূর্ণভাবে বিক্ষোভ প্রদর্শনকারীদের যারা কাফের বলে তারা ইসলাম থেকে দূরে সরে পড়েছে। তারা ইসলামের সঠিক ব্যাখ্যা থেকে বিচ্যুত হয়েছে। তবে শাসকের বিরুদ্ধে সশস্ত্র অবস্থান বড় ধরনের অপরাধ ও পাপ।

    তি‌নি বলেন, এমনকি যারা খোলাফায়ে রাশেদিনের বিরুদ্ধে সশস্ত্র অবস্থান করেছে তাদেরকেও কাফের ব‌লা হয়নি।

    এই ফতোয়ার ব্যাপারে মিসরের গ্রান্ড মুফতি বলেন, আল আজহার সব সময় সবার কথা বিবেচনা করে কাজ করে এবং আমাদের শক্তি-সামর্থ্য দুর্বলকারী ও প্রতিষ্ঠানটির স্বাতন্ত্র্য বিলোপকারী বিভেদ এবং বিভাজন থেকে দূরে থাকে।